ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০ ফাল্গুন ১৪২৫ অাপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২১ জানুয়ারি ২০১৮, ১১:০১

প্রিন্ট

ন্যাম ভবনে এমপির ছেলের ঝুলন্ত লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনের এমপি অ্যাড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহর ছেলে অনিক আজিজ (৩২) ঢাকার ন্যাম ৫নং ভবনের ৫০৪ নম্বর রুমে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

শনিবার রাতের কোনো এক সময় তিনি আত্মহত্যা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নিহতের চাচা শরিফুল্লাহ কাইসার সুমন। 

শেরেবাংলা নগর থানার ওসি গনেশ গোপাল বিশ্বাস বলেন, রবিবার সকালে খবর পেয়ে তারা ৫ নম্বর ভবনে সাংসদের বাসা থেকে অনীকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেন।

পরে ময়নাতদন্তের জন্য তার মরদেহ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

২৭ বছর বয়সী অনীক খুলনার সিটি পলিটেকনিক থেকে ইলেক্ট্রিক্যালে ডিপ্লোমা করে বিদেশে পড়তে যাওয়ার জন্য ঢাকা থেকে আইইএলটিএস করছিলেন। পাশাপাশি পাঠশালায় ফটোগ্রাফির কোর্স করছিলেন তিনি। 

শেরেবাংলা নগর থানার এসআই শফিকুর জানান, ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের তার গলায় পেঁচানো অবস্থায় অনীকের দেহ শোবার ঘরের ফ্যান থেকে ঝুলছিল। তার শরীরে আর কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

পুলিশ প্রাথমিকভাবে এ ঘটনাকে আত্মহত্যা বলে মনে করলেও কী কারণে অনীক আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন, সে বিষয়ে কোনো তথ্য দিতে পারেনি তার পরিবার। 

এমপি লুৎফুল্লাহ সাংবাদিকদের বলেছেন, “পোস্ট মর্টেম হলেই সব বোঝা যাবে।”

অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরো সদস্য। সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসন থেকে এবারই প্রথম তিনি এমপি হয়েছেন।

শনিবার রাতে ন্যাম ভবনের ওই বাসায় ছিলেন অনীক, তার বোন অদিতি আদৃতা সৃষ্টি এবং তাদের পরিবারের এক ড্রাইভার।

সাংসদ মুস্তফা লুৎফুল্লাহ ও তার স্ত্রী নাসরীন খান লিপি শনিবার ছিলেন সাতক্ষীরায়। রবিবার সকালেই তারা ঢাকায় ফেরেন।  

সাংসদের ব্যক্তিগত সহকারী মফিজুল হক জাহাঙ্গীর বলেন, রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে সবাই ঘুমাতে যায়। সকালে সবাই উঠলেও অনীক উঠছিল না। অনেক ডাকাডাকির পরও সাড়া না পেয়ে বিকল্প চাবি দিয়ে ঘরের দরজা খুলে ভেতরে লাশ পাওয়া যায়।

/এসবি/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত