ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ অাপডেট : ৩ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১১ জুলাই ২০১৮, ১৩:১৮

প্রিন্ট

‘মুক্তিযোদ্ধা কোটায় হস্তক্ষেপ করা হবে না’

‘মুক্তিযোদ্ধা কোটায় হস্তক্ষেপ করা হবে না’
অনলাইন ডেস্ক

সরকারি চাকরিতে থাকা মুক্তিযোদ্ধা কোটায় হস্তক্ষেপ করা হবে না বলে জানিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

তিনি বলেন, ‘সরকার যেহেতু আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী। তাই আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় হস্তক্ষেপ করা হবে না। মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধা পরিবার বা মুক্তিযুদ্ধে চেতনায় বিশ্বাসী জনগণের এ বিষয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনও কারণ আছে বলে আমি মনে করি না।’

বুধবার (১১ জুলাই) সচিবালয়ে তথ্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় যোগ্য প্রার্থী পাওয়া না গেলে মেধা তালিকা থেকে তা পূরণ করার সুযোগ থাকলেও ৩০ শতাংশ কোটা সংরক্ষণের বাধ্যবাধকতা রয়েছে বলে হাইকোর্টের আদেশে বলা আছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মোজাম্মেল হক বলেন, সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান মুক্তিযোদ্ধাদের সংরক্ষিত ৩০ শতাংশ কোটা সম্পর্কে হাইকোর্টের আদেশের বিষয়টি সরকার গঠিত কমিটিকে মনে করিয়ে দিতেই আজ এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এ নিয়ে বিভ্রান্তির কোনও সুযোগ নেই।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মোজাম্মেল হক বলেন, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী হিসেবে মুক্তিযোদ্ধা পরিবার, মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অনেক মানুষ আমাকে ফোন করেছেন। আমি তাদেরকে সাফ জানিয়ে দিয়েছি, মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সংরক্ষিত ৩০ শতাংশ কোটায় কোনও হস্তক্ষেপ করা হবে না। এ নিয়ে উদ্বিগ্নের কোনও কারণ নেই।

প্রসঙ্গত, ১৯৭২ সালের ৫ নভেম্বর এক নির্বাহী আদেশে সরকারি, আধাসরকারি, প্রতিরক্ষা এবং জাতীয়করণকরা প্রতিষ্ঠানে জেলা ও জনসংখ্যার ভিত্তিতে ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটা এবং ক্ষতিগ্রস্ত মহিলাদের জন্য ১০ শতাংশ কোটা পদ্ধতি প্রবর্তন করা হয়। পরে বিভিন্ন সময়ে এ কোটা পদ্ধতির সংস্কার, পরিমার্জন ও পরিবর্তন করেছে সরকার।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত