ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫ অাপডেট : ৫ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১১ জুলাই ২০১৮, ১৯:৫৬

প্রিন্ট

রাইফার জন্য কালোব্যাজ ধারণ করলেন গার্ডিয়ানের সাংবাদিক

রাইফার জন্য কালোব্যাজ ধারণ করলেন গার্ডিয়ানের সাংবাদিক
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

সাংবাদিক কন্যা রাইফা খান হত্যার বিচারের দাবিতে চট্টগ্রামে সাংবাদিক-জনতার কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে কালোব্যাজ ধারণ করলেন প্রভাবশালী ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের সিনিয়র সাংবাদিক ক্রিস স্ট্যাফেন। বুধবার সকালে চট্টগ্রামের সাংবাদিক-জনতার সঙ্গে কালোব্যাজ ধারণ করে ভুল চিকিৎসা ও অবহেলায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানান তিনি।

এদিকে আড়াই বছরের শিশুকন্যা রাইফার মৃত্যুর ঘটনায় অভিযুক্ত তিন চিকিৎসক ও ম্যাক্স হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে সাংবাদিক ও পেশাজীবীদের আন্দোলন অব্যাহত আছে।

পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী বুধবার কালোব্যাজ ধারণ করেছে চট্টগ্রামের সাংবাদিক ও পেশাজীবীরা। বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের সমাবেশ থেকে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা দেয়ার কথা রয়েছে।

সাংবাদিক-পেশাজীবী নেতারা বলেন, অবৈধ ম্যাক্স হাসপাতাল বন্ধ ও রাইফা হত্যায় জড়িতদের বিচার নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। ওই তিন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলার প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলেও জানান তারা।

গত ২৮ জুন আইসক্রিম খেয়ে গলাব্যাথা নিয়ে ওই হাসপাতালে ভর্তি হয় দৈনিক সমকাল পত্রিকার চট্টগ্রাম ব্যুরোর স্টাফ রিপোর্টার রুবেল খানের শিশু কন্যা রাইফা খান। ভুল চিকিৎসা, হাসপাতালের অব্যবস্থাপনা ও অবহেলায় প্রাণ হারায় রাইফা। এঘটনার প্রতিবাদে সাংবাদিকসহ চট্টগ্রামের সর্বস্তরের পেশাজীবীরা হাসপাতালটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে সোচ্চার হয়ে উঠেন।

ঘটনার পর পরই স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশে স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালকের (হাসপাতাল ও ক্লিনিক) নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত কমিটি সরেজমিন তদন্ত শেষে ১১টি অনিয়ম ও ত্রুটি চিহ্নিত করে। একই সঙ্গে হাসপাতালটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করেন তারা।

এরপর গত ৪ জুলাই ১৫ দিনের সময় দিয়ে ম্যাক্স কর্তৃপক্ষকে শোকজ করা হয়। অন্যদিকে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জনের দেয়া তদন্ত প্রতিবেদনেও হাসপাতালটিতে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, ডিপ্লোমাধারী নার্স না থাকার কথা তুলে ধরা হয়। সরকারের দুটি সংস্থার পৃথক তদন্তের পর ম্যাক্স হাসপাতালের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

সর্বশেষ গত রোববার স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালকের প্রতিনিধি ও ওষুধ প্রশাসন প্রতিনিধির উপস্থিতিতে র‌্যাবের প্রদান কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরওয়ার জাহান ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

ওই অভিযানে ম্যাক্স হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে অনুমোদনহীন ওষুধ ও মেয়াদোত্তীর্ণ সার্জিক্যাল আইটেম পাওয়া যায়। জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে নিজস্ব প্রতিষ্ঠানে নমুনা পরীক্ষা ছাড়াই ভূঁইফোড় ডায়াগনিস্টিক সেন্টার থেকে প্যাথলজিক্যাল রিপোর্ট নিয়ে নিজের নামে চালিয়ে দেয়ার বিষয়টি উঠে আসে। এছাড়াও নানা অনিয়মের চিত্র পায় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত