ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫ অাপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১৯ আগস্ট ২০১৮, ২২:০৩

প্রিন্ট

যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ
নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকার সাভার উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সেলিম মণ্ডলের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় সেলিমের ভাই বিরুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল মণ্ডলকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রোববার সন্ধ্যায় সাভারের বিরুলিয়া এলাকার সামাইর গ্রামের একটি সড়ক থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে গত ৩ আগস্ট মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার বায়রা ইউনিয়নের স্বরুপপুর গ্রামের একটি কলাবাগান থেকে এক নারীর ঝলসানো মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে রোববার বিকালে নিহতের পরিবার ওই ওই নারীর মরদেহ শনাক্ত করে। নিহতের নাম আয়েশা আক্তার (২৫)। তিনি সাভার থানা যুবলীগের সভাপতি ও ঢাকা জেলা পরিষদের সদস্য সেলিম মণ্ডলের স্ত্রী এবং বিরুলিয়া ইউনিয়নের সামাইর গ্রামের সোহরাব হোসেনের মেয়ে।

সিঙ্গাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার ইমাম হোসেন নিহতের পরিচয় শনাক্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতের ভাই উজ্জ্বল হোসেন অভিযোগ করে বলেন, পাঁচ বছর আগে তার বোন আয়েশা আক্তারের সঙ্গে সেলিম মণ্ডলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে সাভারের পৌর এলাকার মজিদপুর মহল্লায় ভাড়া বাড়িতে বসবাস শুরু করেন তারা। এদিকে পরিবারের অমতে যুবলীগ নেতার দ্বিতীয় বিয়ে করায় পারিবারিকভাবে তাদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই সূত্র ধরে প্রায়ই সেলিম মণ্ডলের সঙ্গে আয়েশা আক্তারের পারিবারিক কলহ লেগেই থাকত। এছাড়াও দেড় মাস আগে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে আয়েশাকে প্রাণে মেরে ফেলারও হুমকি দেন সেলিম মণ্ডল। পরে তিনি আয়েশাকে সিংগাইরের বায়রা এলাকায় একটি নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ করেন উজ্জ্বল হোসেন।

এ ব্যাপারে সিঙ্গাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার ইমাম হোসেন জানান, তরুণীর উদ্ধার করা ঝলসানো মরদেহ শনাক্ত করেছেন তার পরিবার। এরই সূত্র ধরে সাভারের বিরুলিয়া এলাকায় অভিযান চালানো হচ্ছে। এছাড়াও ডিএনএ পরীক্ষার পর বিষয়টি আরো স্পষ্ট হওয়া যাবে।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিনুল কাদির অভিযানের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় যুবলীগ নেতার ভাই জুয়েল মণ্ডলকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এছাড়াও হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও তিনি জানান।

তবে এ ঘটনার পর থেকে যুবলীগ নেতা সেলিম মণ্ডল পলাতক রয়েছে। বন্ধ রয়েছে তার ব্যবহৃত মুঠোফোন নম্বর।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত