ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫ অাপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:৪৮

প্রিন্ট

ভোলার নতুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো

যাচাই হচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষকদের সনদ

যাচাই হচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষকদের সনদ
ভোলা প্রতিনিধি

ভোলার ৭ উপজেলার সব নতুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষকদের সনদ যাচাইয়ের উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নিখিল চন্দ্র হালদার এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘সনদ যাচাইয়ের জন্য সংশ্নিষ্ট উপজেলা শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে শিক্ষকদের সনদের কপি সংগ্রহ করে শিক্ষা বোর্ডে পাঠানো হবে।’

সম্প্রতি চরফ্যাশন উপজেলার নতুন প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. মহসীনের বিরুদ্ধে সিইনএড সনদ জালিয়াতির মাধ্যমে পদোন্নতি নেয়ার বিষয়টি প্রকাশ হয়।

ভোলা জেলার নতুন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত একাধিক শিক্ষকের বিরুদ্ধে জাল একাডেমিক সনদপত্র এবং সিইনএড সনদপত্র দেখিয়ে সহকারী শিক্ষক পদে চাকরি এবং প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি নেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ উঠেছে, জেলার চরফ্যাশন উপজেলাসহ অন্যান্য উপজেলায় বেশ কিছু শিক্ষক জাল একাডেমিক সনদ ও সিইনএড সনদ নিয়ে চাকরিরত। তৎকালীন রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির তথাকথিত নেতাদের কেউ কেউ এসব জাল সনদ সংগ্রহ, অবৈধ নিয়োগ এবং নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষককে এমপিওভুক্ত করার মাধ্যমে অবৈধ সুবিধা নিয়েছেন। বিচ্ছিন্নভাবে উঠে আসা এসব অভিযোগ এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় জেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ ভোলা জেলার ৭টি উপজেলার সব নতুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের সনদ যাচাইয়ের উদ্যোগ নিয়েছে।

গত ৬ সেপ্টেম্বর জেলার ৭টি উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে নিজ নিজ উপজেলায় শিক্ষকদের একাডেমিক সনদপত্র ও সিইনএড সনদপত্র ফটোকপি সত্যায়িত করে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জেডআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত