ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫ অাপডেট : ১৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৯ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:৫২

প্রিন্ট

‘আইয়ুব বাচ্চুর সম্মানে মাদককে না বলুন’

‘আইয়ুব বাচ্চুর সম্মানে মাদককে না বলুন’
নিজস্ব প্রতিবেদক

আইয়ুব বাচ্চুকে ভালোবাসতে হলে আমাদের মাদকের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ। তিনি বলেন, একটা সুন্দর সমাজ গঠনে আইয়ুব বাচ্চুর ভক্তদের বলবো আসুন তার সম্মানে স্থায়ীভাবে মাদক না বলুন।

শুক্রবার সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আইয়ুব বাচ্চুর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এসে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বেনজীর আহমেদ বলেন, আইয়ুব বাচ্চু খুব সংগ্রাম করে বড় হয়েছেন। চাইলে তিনি বকে যেতে পারতেন। কিন্তু বকে যাননি। আইয়ুব বাচ্চুকে ভালোবাসতে হলে আমাদের মাদকের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আইয়ুব বাচ্চুর অকালে চলে যাওয়াই আমরা গভীরভাবে শোকাহত। তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানায়।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৮ অক্টোবর) মাত্র ৫৬ বছর বয়সে আইয়ুব বাচ্চু শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। জনপ্রিয় এই শিল্পীর মৃত্যুতে সারা দেশে শোকের ছায়া নেমে আসে।

দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যান্ড এলআরবির দলনেতা আইয়ুব বাচ্চু ছিলেন একাধারে গায়ক, গিটারবাদক, গীতিকার, সুরকার ও সংগীত পরিচালক।

আইয়ুব বাচ্চু ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রাম শহরের এনায়েতবাজারে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মোহাম্মদ ইসহাক ও মা নূরজাহান বেগম। ১৯৭৮ সালে ফিলিংস ব্যান্ডের মাধ্যমে বাচ্চুর পথচলা শুরু। ১৯৮০ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত ছিলেন সোলস ব্যান্ডের লিড গিটারিস্ট।

আইয়ুব বাচ্চুর অ্যালবাম এলআরবি বাজারে আসে ১৯৯২ সালে। এলআরবিই দেশের প্রথম ডাবল ও আনপ্লাগড অ্যালবাম প্রকাশ করে। সুখ, তবুও, ঘুমন্ত শহরে, ফেরারি মন, আমাদের বিস্ময়, মন চাইলে মন পাবে, অচেনা জীবন, মনে আছে নাকি নাই, স্পর্শ, যুদ্ধ এলআরবির জনপ্রিয় অ্যালবাম।

একক অ্যালবামেও ঈর্ষণীয় সাফল্য পেয়েছেন ক্ষণজন্মা এই শিল্পী। তার একক অ্যালবামের মধ্যে কষ্ট, সময়, একা, প্রেম তুমি কি, দুটি মন, কাফেলা, জীবনের গল্প উল্লেখযোগ্য। কিছু চলচ্চিত্রেও প্লেব্যাক করেছেন আইয়ুব বাচ্চু।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত