ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ অাপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ০৮ নভেম্বর ২০১৮, ১১:৫১

প্রিন্ট

বয়স বাড়লেই কি ডিম খাওয়া বন্ধ করবেন?

বয়স বাড়লেই কি ডিম খাওয়া বন্ধ করবেন?
জার্নাল ডেস্ক

এক সময়ে মনে করা হতো ডিমে যেহেতু কোলেস্টেরল বেশি, তাই তা নিয়মিত খেলে হৃদরোগের সম্ভাবনা বাড়তে পারে। তবে সেই ভয় দূর করার জন্য প্রচুর গবেষণা হয়েছে। আর এসব গবেষণায় দেখা গেছে ডিম খাওয়ার সঙ্গে হৃদরোগ বা স্ট্রোকের কোনো সম্পর্ক নেই।

তবে কিছু চিকিৎসকরা মনে করেন, ডায়াবেটিক হলে নিয়মিত ডিম খাওয়ায় হৃদরোগের আশঙ্কা কিছুটা বাড়তে পারে।

কিন্তু অন্য ভাগ চিকিৎসকরা বলছেন, ডায়াবেটিক রোগীরা যদি লো–কার্বোহাইড্রেট ডায়েটের সঙ্গে ডিম খান, অন্যান্য উপকারের পাশাপাশি তাতে তাদের হৃদরোগের আশঙ্কা উল্টো কমে। তাই তারা বলেন বয়স বাড়ছে বলে আগে থেকেই ডিম খাওয়া বন্ধ করে দেয়াটা ঠিক নয়।

ডিমের ভাল দিক

ডিমে প্রোটিন, ভিটামিন, প্রয়োজনীয় খনিজ সবই আছে পর্যাপ্ত পরিমাণে। আবার প্রোটিনসমৃদ্ধ বলে পেট অনেক সময় ভরা থাকে। নিয়মিত ডিম খেলে ওজন ও রক্তচাপের মাত্রা ঠিক থাকে। যার ফলে সুস্থ থাকে হার্ট।

ডিম ও কোলেস্টেরল

বড় সিদ্ধ ডিমে প্রায় ২১২ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল থাকে। তাই যাদের কোনো ধরণের অসুখ আছে তারা সপ্তাহে একটি বা দুইটির বেশি খাবেন না। তবে কুসুম বাদ দিয়ে প্রতিদিনই খেতে পারেন। সুস্থ মানুষ ৬ সপ্তাহ দিনে দুটো করে ডিম খেলে রক্তের ভাল কোলেস্টেরল প্রায় ১০ শতাংশ বাড়ে।

আবার সপ্তাহে ৫টা করে পাস্তুরাইজড বা উপযুক্ত উপায়ে জীবাণুবিহীন করে সংরক্ষিত ডিম তিন সপ্তাহ ধরে খেলে ট্রাইগ্লিসারাইড কমে ১৬–১৮ শতাংশ। যার ফলে কমে হৃদরোগ, স্ট্রোকের আশঙ্কা। জীবাণুমুক্ত বা পাস্তুরাইজড না হলে ডিম কাঁচা খাবেন না।

আরএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত