ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮, ৪ ভাদ্র ১৪২৫ অাপডেট : ৪ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২১ জানুয়ারি ২০১৮, ০১:৫৭

প্রিন্ট

মাংস কিনতে গিয়ে গণধর্ষিত তরুণী

মাংস কিনতে গিয়ে গণধর্ষিত তরুণী
জার্নাল ডেস্ক
দিনে দুপুরে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক তরুণী৷ ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতায়।  আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসে মাংস কিনতে গিয়ে গণধর্ষিত হয় ওই তরুণী৷ শুক্রবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটে তারাতলা থানা এলাকার কেওপিটি কলোনির কাছে৷  
 
২৭ বছর বয়সী ওই তরুণী মুরগীর মাংস কিনতে যায় এলাকারই একটি দোকানে৷ মাংস কেটে দেবে বলে দোকানের কর্মী তাকে অন্য একটি পরিত্যক্ত জায়গায় নিয়ে যায়৷ সেখানে ওই দোকানদার আরও কয়েকজন বন্ধুকে ডেকে এনে গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ৷ এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিন নাবালক-সহ ছ’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ ধৃতদের মধ্যে মূল অভিযুক্ত মাংসের দোকানের কর্মী৷ তার বয়স ১৫ বছর৷
 
শুধু শারীরিক নির্যাতন করেই থেমে যায়নি অভিযুক্তেরা৷ ধর্ষণের সময় তরুণীর নগ্ন ছবি মোবাইলে তুলতে থাকে তারা৷ ধর্ষণের ভিডিও রেকর্ডিংও করা হয়৷ ছ’জন মিলে তাঁকে ধর্ষণের পরে পরিত্যক্ত জায়গায় নগ্ন অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় অভিযুক্তেরা৷ পালানোর আগে অভিযুক্তেরা তরুণীকে হুমকি দেয় যে ধর্ষণের ঘটনা কাউকে জানালে তাঁর নগ্ন ছবি এবং ভিডিও সব জায়গায় ছড়িয়ে দেবে তারা৷
 
এরপর তরুণী বাড়ি ফিরে সাহস করে গোটা ঘটনা তার পরিবারের লোকেদের জানায়৷ সেদিন দুপুরেই তারাতলা থানায় গণধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করা হয়৷ অভিযোগ পেয়েই তদন্তে নামে তারাতলা থানার পুলিশ৷ রাতেই ছয় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়৷ ধৃতদের নাম সুমিত সিংহ, অভিষেক কুমার, প্রদীপ কুমার চৌধুরী৷ এছাড়া আরও তিন নাবালককেও গণধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ নির্ভয়া-কাণ্ডে দিল্লিতে বাসের মধ্যে এক তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনাতেও যুক্ত ছিল এক নাবালক৷
 
ডিসি (সাউথ-ওয়েস্ট) মীরাজ খালিদ জানিয়েছেন, তদন্তে নেমেই প্রথমে মাংসের দোকানের কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়৷ তাকে জেরা করে বাকি পাঁচজনকেও গ্রেফতার করা হয়েছে৷ যে মোবাইলে ধর্ষণের ভিডিও এবং নির্যাতিতা তরুণীর ছবি তোলা হয়েছিল সেটি ধৃতদের থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷ শনিবার ধৃতদের আদালতে তোলা হয়েছে৷ নাবালক অভিযুক্তদের পেশ করা হয়েছে জুভেনাইল আদালতে৷
 
এদিন ঘটনাস্থলে যায় তারাতলা থানার পুলিশ এবং ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা৷ ঘটনাস্থল থেকে বেশ কিছু নমুনা সংগ্রহ করেছে তারা৷ পাশাপাশি নির্যাতিতা তরুণী এবং অভিযুক্তদের পোশাক সংগ্রহ করা হয়েছে৷ সেগুলি ফরেন্সিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে৷
 
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।
  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত