ঢাকা, সোমবার, ১৬ জুলাই ২০১৮, ১ শ্রাবণ ১৪২৫ অাপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৯ মার্চ ২০১৮, ০৯:৪১

প্রিন্ট

বিজেপির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা রাহুলের

বিজেপির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা রাহুলের
ফাইল ছবি
জার্নাল ডেস্ক

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দল বিজেপিকে আধুনিক যুগের ‘কৌরব’ আখ্যা দিয়ে তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের ডাক দিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী।

শাসক দল বিজেপির দুই প্রধান নেতা নরেন্দ্র মোদি এবং অমিত শাহকে সরাসরি নিশানা করা শুধু নয়, সেই সঙ্গে আরএসএসের বিরুদ্ধেও যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন রাহুল। দ্বিতীয় মহাভারতের যে যুদ্ধে ‘কৌরব’ বিজেপি এবং আরএসএস। আর ‘পাণ্ডব’ কংগ্রেস।

প্লেনারি অধিবেশনের মঞ্চ থেকে লোকসভা ভোটের ডাক দিয়ে দলকে চাঙ্গা করাই এখন মূল লক্ষ্য রাহুলের। অন্য বিরোধী দলের মতোই তাই অভিন্ন প্রতিপক্ষ মোদি-শাহের সঙ্গে আরএসএস-কেও টেনে এনে এক সূত্রে নিশানা করে ঝাঁঝালো আক্রমণ করলেন রাহুল। তার বক্তব্য, নরেন্দ্র মোদি মানেই দুর্নীতি, মিথ্যাচার। আর অমিত শাহ হত্যায় অভিযুক্ত। সেই সঙ্গে দলকে বললেন, ‘সংগঠিত ও অর্থবলে বলীয়ান কৌরবরা যেমন ক্ষমতার জন্য লড়তেন, আরএসএস-বিজেপিও তেমন। আর বিনয়ী পাণ্ডবদের মতোই কংগ্রেস লড়বে সত্যের জন্য।’

এ দিন বক্তৃতায় মহাভারত থেকে ভগবান, মন্দিরে পুজা, আর সঙ্ঘ পরিবারের অন্যতম আদর্শ বিনায়ক সাভারকরের নিন্দা করে আসলে বিজেপির হিন্দু ভোটব্যাঙ্কেই থাবা বসাতে চেয়েছেন রাহুল। যে কারণে তাড়াহুড়ো করে আসরে নেমে মোদি সরকারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বলেন, ‘হেরোর প্রলাপ বকছেন কংগ্রেস সভাপতি! যারা রামের অস্তিত্ব মানেনি, তারাই হিন্দুত্বের কথা বলছে!’

এ দিন একাধিকবার মোদি-শাহকে নিশানা করেছেন রাহুল। দুর্নীতির অভিযোগে মোদিকে দোষী প্রমাণ করতে মোদি নামের সঙ্গে মিল টেনে ললিত থেকে নীরব— সবাইকে এক সূত্রে গেঁথেছেন রাহুল। যার জবাবে বিজেপির বক্তব্য, 'সব মোদিকে' এক আসনে বসিয়ে রাহুল প্রধানমন্ত্রীর জাত তুলে আক্রমণ করেছেন। মণিশঙ্কর আইয়ারের ‘নীচ’ মন্তব্য ঘিরে খোদ প্রধানমন্ত্রী যে ভাবে আসরে নেমেছিলেন, এ বারেও বিজেপি সেই ভাবে নামছে।

বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকে ‘হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত’ বলে রাহুল বলেন, ‘কংগ্রেসে এমন সভাপতিকে কেউ মেনে নেবে না।’ নির্মলার দাবি, অমিত শাহের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে অভিযোগ আনা হয়েছিল। এখন কোনো অভিযোগ নেই।

কংগ্রেসের বক্তব্য, রাহুল জানেন তার দলের দুর্বল অবস্থার কথা। মোড় ঘোরাতে বিজেপি-সঙ্ঘের বিরুদ্ধ-হাওয়া কাজে লাগাতে মরিয়া তিনি। বিজেপি-বিরোধী জোটের নেতৃত্ব দিতে গেলে তাকেই যে মোদি বিরোধী মুখ হিসেবে উঠে আসতে হবে, সেটাও জানেন। তাই ‘আচ্ছে দিন’, বেকারত্ব-কৃষি দুরাবস্থা থেকে মুখ ঘোরাতে ইন্ডিয়া গেটে মোদির যোগাসন, বিচারব্যবস্থা-সংবাদমাধ্যমে বিজেপির হস্তক্ষেপ— মোদি বিরোধী কোনো অস্ত্রই হাতছাড়া করছেন না তিনি। সেই সঙ্গেই বলেছেন, ‘মোদী ভাবেন উনি ভগবানের অবতার। তাই ভুল মানেন না! আমি মানুষ। তাই ভুল স্বীকার করি। ভুল থেকে শিক্ষা নিই।’

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা
এসএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত