ঢাকা, সোমবার, ২১ মে ২০১৮, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ অাপডেট : ৪ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৩ মার্চ ২০১৮, ২১:৪৫

প্রিন্ট

দিনে দুটি ডিম খেলে কী হয়?

দিনে দুটি ডিম খেলে কী হয়?
জার্নাল ডেস্ক

সকালের নাস্তার সবচাইতে মজাদার এবং পুষ্টিকর খাবার হলো ডিম। খুব সহজেই ভেজে বা সেদ্ধ করে খাওয়া যায় বলে অনেকেরই প্রতিদিনের নাস্তায় ডিম থাকে। তবে ডিম খাওয়া নিয়ে অনেকেই দ্বিধাগ্রস্ত থাকেন। বিশেষ করে একটির বেশি দুটি ডিম খাওয়াকে ক্ষতিকর মনে করেন অনেকেই। কিন্তু গবেষণায় জানা গেছে যে দুটি ডিম খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর তো নয়ই বরং উপকারী।

ডিমে যা থাকে: ডিমে প্রচুর ভিটামিন এ, ডি এবং ই থাকে। সেই সঙ্গে থাকে বি-১২, রিবোফ্লাভিন এবং ফলেট। এছাড়াও আয়োডিন, আয়রন, ক্যালসিয়াম, জিংক এবং সেলেনিয়াম থাকে ডিমে। সুইডিশ সাইট অ্যাফটনব্লাডেট এর পুষ্টিবিদ জেনি নেনভিক এর মতে, ডিমে যে পরিমাণ কোলেস্টেরল থাকে তা মানুষের শরীরের জন্য ক্ষতিকর নয়। ডিমে উপস্থিত ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড শরীরের জন্য উপকারী। তবে দুটো ডিম খেলে খেয়াল রাখতে হবে দিনের অন্যান্য খাবারের দিকেও।

ডিম ওজন কমায়: বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে সকালের নাস্তায় প্রোটিন বেশি থাকলে দ্রুত ওজন কমে। বিশেষ করে সকালের নাস্তায় দুটি ডিম দীর্ঘ সময় পেট ভরা থাকবে এবং সারাদিন অন্যান্য উচ্চ ক্যালরির খাবার খাওয়ার পরিমাণ করবে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: ডিমে উপস্থিত সেলেনিয়াম রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে। গবেষণায় দেখা গেছে দিনে দুটি ডিম খেলে বিভিন্ন ইনফেকশন, ভাইরাস এবং ছোটখাটো অসুস্থতা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

স্মৃতিশক্তি বাড়ায়: ডিমে আছে অ্যামিনো এসিড কোলিন যা স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সহায়তা করে। এছাড়াও মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়াতেও প্রতিদিন দুটি ডিম উপকারী।

চোখের জন্য ভালো: ডিমে আছে লুটেইন। লুটেইন দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে সহায়তা করে। গবেষণায় দেখা গেছে যে অন্যান্য পাখির ডিমের তুলনায় মুরগির ডিমে লুটেইনের পরিমাণ বেশি থাকে। তাই দিনে দুটি মুরগির ডিম খেলে রেটিনা সুরক্ষিত থাকবে।

বিষণ্ণতা দূর করে: মনটা খারাপ লাগছে? দুটো ডিম খেয়ে নিন। কারণ ডিমে আছে ভিটামিন ডি। ভিটামিন ডি বিষণ্ণতা দূর করতে সহায়তা করে।

হাড় শক্ত করে: ডিমে আছে ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন ডি। হাড় সুস্থ রাখতে প্রতিদিন দুটো ডিম খাওয়ার বিকল্প নেই। নিয়মিত ডিম খেলে হাড় ক্ষয়ের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

রক্তশূন্যতা দূর করে: ডিমে আছে ফলেট। এছাড়াও নতুন রক্ত কণিকা সৃষ্টিতে সাহায্যকারী উপাদান ভিটামিন বি আছে। যাই যাদের রক্তশূন্যতা তাদের নিয়মিত খাবার তালিকায় দুটি ডিম রাখা উচিত।

চুল, ত্বক ও নখের জন্য: ডিমে উপস্থিত ভিটামিন বি ও ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড চুলের জন্য খুবই উপকারী। এছাড়াও ত্বক ও নখের সুস্থতার জন্যও খাবার তালিকায় নিয়মিত ডিম খাওয়া জরুরী।

হৃদপিণ্ডের সমস্যার ঝুঁকি কমায়: কানাডার গবেষকরা জানিয়েছেন যে ডিম হৃদপিণ্ডের সমস্যার ঝুঁকি কমায় এবং কিছু ক্যানসারের ঝুঁকিও কমায়। যাদের এলডিএল (লো ডেনসিটি লিপ্রোপ্রোটিন) কম থাকে তাদের সাধারণ হৃদপিণ্ডে সমস্যা হবে। প্রতিদিন দুটি ডিম খেলে এলডিএল বৃদ্ধি পায়। ফলে হৃদপিণ্ডে সমস্যা হওয়ার ঝুঁকি কমে যায়। 

আরো পড়ুন : দুধ এবং কলা একসাথে খেলে যা হয়

কীভাবে সকালে তাড়াতাড়ি উঠবেন

/এসকে/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত