ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ অাপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১৭ মে ২০১৮, ১০:১২

প্রিন্ট

রমজানে বাজার খরচ বাঁচাবেন যেভাবে

রমজানে বাজার খরচ বাঁচাবেন  যেভাবে
জার্নাল ডেস্ক

বছর ঘুরে আবার এসে গেছে পবিত্র মাহে রমজান। মুসলমানদের কাছে খুবই তাৎপর্যপূর্ণ এই মাসটি। আমাদের দেশে প্রায় প্রতিটি বাড়িতেই রমজান মাসকে ঘিরে থাকে নানা প্রস্তুতি। প্রথম রোজা থেকেই চলে কেনাকাটাসহ আরও কত কি। এই মাসে আমাদের বাজার তালিকায় এমন অনেক কিছুই লাগে যা বাকি অন্য সব মাসে লাগে না। আবার রোজার পুরো মাসই দ্রব্যমূল্য থাকবে অনেক বেশি। তাই রমজানের বাজার খরচ কমাতে অনেক পরিবারই হয়ে যায় দিশেহারা। তবে আজ প্রথম রমজান থেকেই বাজারের আগে যদি কিছু বিষয় মাথায় রাখেন তবে রোজার বাজারের খরচ কমে যাবে অনেক। এই নিয়েই আমাদের আজকের কিছু পরামর্শ দেখে নিন।

দোকান ঘুরে ও আর্থিক অবস্থা অনুসারে বাজার অনেকেই বাজার করতে গিয়ে বেশি দোকান না ঘুরে ও এক জায়গা থেকেই সব কেনার চেষ্টা করেন। কিন্তু মনে রাখতে হবে যদি রোজার বাজারের খরচ কমাতে চান তবে দোকান ঘুরে ঘুরে দামদর বুঝে নিন। এমন কি এক বাজারে আপনার পছন্দ মত ও দাম অনুসারে সব পণ্য পাবেন না। তাই কাঁচাবাজারের পাশাপাশি সুপারশপ দিয়েও কিনতে হবে বাজার। এতে খরচ কমবে। কারণ কাঁচাবাজারে এমন অনেক খোলা পণ্য থাকে যার মেয়াদ আপনি বুঝতে পারবেনা। কিন্তু এই পণ্য গুলো সুপারশপে মেয়াদের তারিখ সহ পাবেন। আবার খোলা বাজারে চিড়া, মুড়ি, ছোলা এগুলোর কোন মেয়াদের তারিখ থাকে না। যা সুপারশপ গুলোতে পাবেন। তাই বাজার করার আগে বুঝে নিন কোন পণ্য কোন বাজার থেকে কিনবেন। তবে তা অবশ্যই আপনার আর্থিক অবস্থা বুঝে।

একবারে মাসের বাজার করুন প্রথম রোজাতেই পরিবারের একজন চলে যান বাজারে। তাই যদি খরচ কমাতে চান তবে একবারের মাসের বাজার করে নিয়ে আসুন। অল্প অল্প করে বাজার করবেন না। কারণ এতে খরচের হিসাব পাওয়া যায় না। অন্যদিকে বোঝা না গেলেও এতে বরং খরচ আরো বেশি হয়। আর রোজার মাসে দিন যত যায় দ্রব্যমূল্য আরো বাড়তে থাকে। তাই যত তাড়াতাড়ি রমজানের জন্য সব পণ্য বাজার করবেন ততই খরচ কমবে। আর বাজার খরচের চিন্তা থেকেও কিছুটা মুক্তি পাবেন। তবে যদি খুব সমস্যা হয় তাহলে বাজেট করে সপ্তাহের বাজার করতে পারেন।

রোজার মাসের বিশেষ পণ্যগুলো কিনুন রমজান মাসে আমাদের এমন অনেক খাবার ও পণ্য লাগে যা বাকি সারা বছর লাগে না। যেমন মুড়ি, চিড়া, গুড়, ছোলা, হালিম, নানা ধরনের ডাল এগুলো রোজার মাসেই প্রথমে প্রয়োজন। অনেকে অন্য মাসের মতই বাজার করে ফেলেন এতে আপনার খরচ বেড়ে যাবে। আবার অনেক পণ্য আছে যা পরে লাগবে যেমন অনেক বেশি মশলা, পোলাউ এর চাল এগুলো কম কেনাই ভাল।

পচনশীল পণ্য বুঝে কিনুন সব বাজার এক সাথে করার ভাবনা থেকে আবার পচনশীল খাবারও কিনে ফেলবেন না। যেমন পেয়াজ, আদা, রসুন, মুরগি, মাছ, ডিম, দুধ এগুলো একবারে না কিনে ১৫ দিনের হিসেবে কিনুন। কারণ পেয়াজ, আদা, রসুন এগুলো পচে বা শুকিয়ে যায়। তাছাড়া একমাস ফ্রিজে মাছ ও মুরগি থাকলে গন্ধ হয়ে যায়। তাই খরচ বাঁচাতে বুঝে কিনতে হবে। আবার এ মাসে অনেক তেল প্রয়োজন হয়। তাই এমন ধরনের শুকনো পণ্য একবারে কিনে ফেলতে পারেন।

ছাড় ও মেম্বারশীপ কার্ডের সুবিধা নিন অনেক সুপারশপে প্রথম রোজা থেকেই বিশেষ ছাড় ও মেম্বারশীপ কার্ডের উপর সুবিধা দিয়ে থাকে এগুলো সংরক্ষণ করুন। আপনি বাজারের দামের চেয়ে অনেক কম দামে কিনতে পারবেন। তবে খরচ কমাতে গিয়ে পুরনো পণ্য কিনে ঠকে যাবেন না যেন। আর অবশ্যই মেয়াদ দেখে কিনুন।

আরএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত