ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮, ২ ভাদ্র ১৪২৫ অাপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২১ মে ২০১৮, ১৭:৪৪

প্রিন্ট

সম্প্রচারে আসছে আরো তিন টেলিভিশন চ্যানেল

সম্প্রচারে আসছে আরো তিন টেলিভিশন চ্যানেল
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে আরো তিনটি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল সম্প্রচারে আসছে। বেসরকারি এ টেলিভিশন চ্যানেলগুলো হচ্ছে গ্লোবাল টিভি, তিতাস টেলিভিশন ও সিটিজেন টিভি। সম্প্রতি এ তিন চ্যানেলের জন্য স্যাটেলাইট তরঙ্গ বরাদ্দ দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

তথ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, তিতাস টিভি ২০১৩ সালের নভেম্বরে, গ্লোবাল টিভি ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে ও সিটিজেন টিভি ২০১৭ সালের এপ্রিলে স্যাটেলাইট টেলিভিশন চালুর অনাপত্তি পেয়েছে। গ্লোবাল টিভির কার্যক্রম পরিচালনায় রয়েছে গ্লোব মাল্টিমিডিয়া লিমিটেড। আর তিতাস টেলিভিশনের মালিকানায় রয়েছে মিলেনিয়াম মিডিয়া লিমিটেড। সিটিজেন টেলিভিশন লিমিটেডের মালিকানাধীন চ্যানেল হলো সিটিজেন টিভি।

বিটিআরসির তথ্যমতে, মিলেনিয়াম মিডিয়া লিমিটেড ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে স্যাটেলাইট তরঙ্গ বরাদ্দ, বেতারযন্ত্র আমদানি ও ব্যবহারের অনুমতি চেয়ে কমিশনের কাছে আবেদন করে। প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ নির্ধারিত ফি হিসেবে ৬ হাজার ৩২৫ টাকা জমা দেয় প্রতিষ্ঠানটি। এরপর টিভি চ্যানেলটিকে তরঙ্গ বরাদ্দ, বেতারযন্ত্র আমদানি ও ব্যবহারের অনুমতির বিষয়টি নিয়ন্ত্রক সংস্থার তরঙ্গ ব্যবস্থাপনা কমিটির (এসএমসি) সভায় উপস্থাপন করা হয়। নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর ছাড়পত্র প্রাপ্তিসাপেক্ষে তা কমিশনের অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করে কমিটি। ২০১৪ সালের মার্চে দুটি গোয়েন্দা সংস্থা প্রতিষ্ঠানটির অনুকূলে অনাপত্তিপত্র দেয়। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ছাড়পত্র না দেয়ায় মিলেনিয়াম মিডিয়ার এ আবেদন আটকে ছিল। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে প্রতিষ্ঠানটির অনুকূলে তরঙ্গ বরাদ্দের বিষয়ে অনাপত্তি দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি এ স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলের অনুকূলে তরঙ্গ বরাদ্দ এবং বেতারযন্ত্র আমদানি ও ব্যবহারের সাময়িক অনুমোদন দিয়েছে কমিশন।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে স্যাটেলাইট তরঙ্গ বরাদ্দের জন্য আবেদন করে গ্লোব মাল্টিমিডিয়া। একই সঙ্গে বেতারযন্ত্র আমদানির অনুমতি চেয়েও আবেদন করে প্রতিষ্ঠানটি। পরবর্তীতে আবেদন যাচাইয়ে এসএমসি সভায় উপস্থাপন করা হলে নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর ছাড়পত্র প্রাপ্তিসাপেক্ষে তা কমিশনের অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করে কমিটি। গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে চলতি বছরের জানুয়ারি সময়ে প্রতিষ্ঠানটির অনুকূলে নিরাপত্তা ছাড়পত্র দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও দুটি গোয়েন্দা সংস্থা। এসএমসির সুপারিশ ও নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর ছাড়পত্রের পরিপ্রেক্ষিতে গ্লোব মাল্টিমিডিয়াকে ৬ মেগাহার্টজ তরঙ্গ বরাদ্দ এবং বেতারযন্ত্র আমদানি ও ব্যবহারের সাময়িক অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

সিটিজেন টেলিভিশন লিমিটেড গত বছরের নভেম্বরে তরঙ্গ বরাদ্দের আবেদন করে। এসএমসির সুপারিশের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠানটির বিষয়ে নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর মতামত চেয়ে চলতি বছরের মার্চে চিঠি দেয় বিটিআরসি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলো অনাপত্তি দেয়ায় সম্প্রতি তরঙ্গ বরাদ্দ এবং বেতারযন্ত্র আমদানি ও ব্যবহারের অনুমতি পেয়েছে সিটিজেন টেলিভিশন।

বিটিআরসির ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা এ প্রসঙ্গে বলেন, স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর তরঙ্গ বরাদ্দের বিষয়ে প্রাথমিকভাবে যাচাইয়ের জন্য এসএমসির কাছে পাঠানো হয়। এসএমসি এতে অনুমোদনের সুপারিশ করলে অনাপত্তি প্রদানের জন্য নিরাপত্তা সংস্থাগুলোকে অনুরোধ করা হয়। তাদের ছাড়পত্র পেলে তরঙ্গ বরাদ্দ এবং বেতারযন্ত্র আমদানি ও ব্যবহারের সাময়িক অনুমোদন দেয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

কমিশন সূত্রে জানা গেছে, নতুন এসব প্রতিষ্ঠান ছাড়া এখন পর্যন্ত ৩৬টি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলকে তরঙ্গ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে দুটি টেলিভিশন চ্যানেলের তরঙ্গ স্থগিত করা হয়েছে। টেলিভিশন চ্যানেলগুলোকে ৫ দশমিক ৮৫ থেকে ৬ দশমিক ৪২৫ গিগাহার্টজ ব্যান্ডে তরঙ্গ বরাদ্দ দেয় বিটিআরসি। এ ব্যান্ডটিতে টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর চাহিদা অনুযায়ী আপালিংকের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয় ৬, ৯ অথবা ১২ মেগাহার্টজ তরঙ্গ।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত