ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ অাপডেট : ৪ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১০ নভেম্বর ২০১৭, ১৪:৩৪

প্রিন্ট

প্রবীণ রাজনীতিবিদ মাহবুবুল হক আর নেই

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ (মাহবুব) এর আহ্বায়ক প্রবীণ রাজনীতিবিদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ফ ম মাহবুবুল হক আর নেই (ইন্নালিল্লাহ ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন)।

কানাডার রাজধানী অটোয়ায় স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাত ১১টা ৭ মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর।

বাসদের (মাহবুব) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মইন উদ্দিন চৌধুরী লিটন গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

২০০৪ সালে ঢাকায় গাড়িচাপায় গুরুতর আহত হওয়ার পর মাহবুবুল হক কানাডা চলে যান। দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিলেও পুরোপুরি সুস্থ হতে পারেননি। স্ত্রী ও একমাত্র মেয়েকে নিয়ে কানাডাতেই বসবাস করে আসছিলেন।

গত সেপ্টেম্বর মাসে সিঁড়ি থেকে পড়ে গিয়ে মস্তিষ্কে আঘাত পান আ ফ ম মাহবুবুল হক। এরপর থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

আ ফ ম মাহবুবুল হকের জন্ম ১৯৪৮ সালের ২৫ ডিসেম্বর নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামে। ১৯৬২ সালে স্কুলে পড়ার সময়ই তিনি প্রতিক্রিয়াশীল শিক্ষানীতি বিরোধী ছাত্র আন্দোলনে যুক্ত হন। পরে সক্রিয় হন ছাত্র রাজনীতিতে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগে পড়ার সময় ১৯৬৭ সালে তিনি পূর্ব পাকিস্তান ছাত্রলীগের সূর্যসেন হল শাখার সাধারণ সম্পাদক হন। ১৯৬৯-৭০ সালে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশ লিবারেশন ফোর্স (মুজিব বাহিনী) গঠন করা হলে সেখানে প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ছাত্রলীগ ভেঙে জাসদ ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠা পেলে মাহবুবুল হক হন প্রতিষ্ঠাকালীন সাধারণ সম্পাদক। ১৯৭৩ থেকে ১৯৭৮ পর্যন্ত তিনি সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭৮ সালে জাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হন।

ভারতের বামপন্থী দল সোশ্যালিস্ট ইউনিটি সেন্টার অফ ইন্ডিয়ার (এসইউসিআই) নেতা শিবদাস ঘোষের চিন্তা-চেতনার আলোকে ১৯৮০ সালে বাসদ প্রতিষ্ঠা হয়। মাহবুবুল হক হন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য।

তিন বছরের মাথায় আদর্শগত মতবিরোধে বাসদ দুই ভাগ হয়। একটি অংশের নেতৃত্ব পান খালেকুজ্জামান। অপর অংশের আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন মাহবুবুল হক।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত