ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ২ কার্তিক ১৪২৫ অাপডেট : ২ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:৩১

প্রিন্ট

দেড় ঘণ্টা পর সমাবেশে বি চৌধুরী, ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা

দেড় ঘণ্টা পর সমাবেশে বি চৌধুরী, ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা
নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সমাবেশ শুরুর দেড়ঘণ্টা পর সেখানে গিয়েছেন সমাবেশের প্রধান অতিথি বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি বদরুদ্দোজা চৌধুরী (বি চৌধুরী)। এতে ক্ষুব্ধ হয়েছেন উপস্থিত নেতাকর্মীরা।

বিকেল ৩টার দিকে সমাবেশ শুরু হয় এবং সাড়ে ৪টা ৩৮ মিনিটে দিকে মহানগর নাট্যমঞ্চের মূল গেট দিয়ে ভেতরে ঢোকেন সমাবেশের প্রধান অতিথি। এসময় তার সাথে ছিলেন বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান ও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মাহি বি চৌধুরী।

এর আগে শুরুতেই জাতীয় ঐক্যের নাগরিক সমাবেশে না থাকায় তাকে নিয়ে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। সমাবেশে তার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা।

একপর্যায়ে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, বি চৌধুরী এখনো আসেননি। তবে তিনি আসবেন বলে আমি আশা করছি।

শেষ পর্যন্ত সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সমাবেশস্থলে পৌঁছান বি চৌধুরী।

জাতীয় ঐক্য সমাবেশে আসা মহাখালীতে মো. জাকির হোসেন বলেন, বি চৌধুরী সমাবেশে এমন নাক বরাবর সময় আসবেন এটা অপ্রতাশিত।

এদিকে পল্টন থেকে সমাবেশে আসা জহির নামের এক কর্মী বলেন, প্রথমে ভেবেছি চৌধুরী সাহেব আসবেন না তবে ওনি এসেছেন শুনে খুশি হয়েছি।

সমাবেশ শুরুর দিকে সেখানে উপস্থিত হন গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। এছাড়া জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ায় সংহতি জানানো রাজনৈতিক দল বিএনপির শীর্ষ চার নেতাও সমাবেশে উপস্থিত হন। বিকেল তিনটার দিকে সেখানে যান বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সভাপতি ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, মঈন খান ও ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

এছাড়া গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি জাফর উল্লাহ চৌধুরী, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকিও সেখানে উপস্থিত হন। সমাবেশ শুরুর এক পর্যায়ে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার অন্তর্ভুক্ত রাজনৈতিক দলগুলোর নেতারা একে অপরের হাতে হাত রেখে ঐক্য ঘোষণা করেন।

‘কার্যকর গণতন্ত্র, আইনের শাসন ও জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে’ এ সমাবেশের আয়োজন করেছে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া। সমাবেশ ঘিরে সেখানে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

সমাবেশে আরও উপস্থিত রয়েছেন লেবার পার্টির সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) নেতা মোস্তফা জামাল হায়দার, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর আহমেদ, নাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) সভাপতি মোস্তফা জামান, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক হারুন চৌধুরী, সোনার বাংলা পার্টির আবদুর নূর, গণদল সভাপতি গোলাম মাওলা চৌধুরী।

সমাবেশ সুন্দর ও সুশৃঙ্খল করতে পুলিশের কড়া নজরদারি রয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কেউ বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করলে তা সঙ্গে সঙ্গে প্রতিহত করা হবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত