ঢাকা, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ অাপডেট : ৪৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১১ নভেম্বর ২০১৭, ২০:০২

প্রিন্ট

রোবট সোফিয়াকে নিয়ে সৌদি আদিখ্যেতা

হামিদুল হক

সৌদি অ্যারাবিয়ানের মতো মাথামোটা, অসংযমী, স্বার্থপর, অলস, বদমেজাজী জাতি বিশ্বে দ্বিতীয়টি আছে কিনা সে নিয়ে আমার সন্দেহ রয়েছে। যে দেশটি ইসলামের ধারক বাহক হিসেবে পরিচিত, যে ধর্মটিতে মূর্তিপূজা হারাম, সেই ধর্মের অনুসারী হয়ে সেই দেশের কর্ণধরেরা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন সোফিয়া নামের একটি রোবটকে নাগরিকত্ব প্রদান করেছে। লাখো প্রবাসী বছরের পর বছর ঘাম ঝরিয়ে যে দেশটির উন্নয়নের চাকা সচল রাখে, সে দেশটি একজন প্রবাসীকে নাগরিকত্ব দিতে পারে না, অথচ কোটি কোটি ডলার ব্যায়ে রোবট তৈরি করে তার নাগরিকত্ব দিতে তাদের বিবেকে বাধে না। কতবড় অমানবিক একটা জাতি!

গতকাল ইউটিউবে রোবটটি আমি দেখেছি। হংকং এর 'হ্যান্সন রোবোটিক্স কোম্পানির বিজ্ঞানী ডেভিড হ্যানসন সোফিয়া নামের রোবটটি তৈরি করেছে। এমন রোবট এর আগেও তৈরি হয়েছে। তবে সোফিয়া অন্য রোবটদের তুলনায় আলাদা। বিশেষ কারিগরিতে নির্মিত। 

আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্সের কারণে সে অনুভূতি সম্পন্ন। প্রেস কনফারেন্সে প্রশ্ন করা হয়েছিল, সোফিয়া, তুমি কি মানুষকে ধ্বংস করতে পারবে? ডেভিড হ্যানসন চাইছিলেন, সোফিয়া 'না' বলুক। সোফিয়া বিজ্ঞানীর ইচ্ছেকে পাশ কাটিয়ে বলে দিল, আমি মানুষকে ধ্বংস করব। সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পেয়ে কেমন লাগছে? সঞ্চালক রস সরকিনের এই প্রশ্নের জবাবে সোফিয়া বলেছে, ভাল লাগছে।

সুন্দর মুখ অবয়বে বানানো হয়েছে সোফিয়াকে। আমার সন্দেহ হচ্ছে, এই মাথামোটা অসংযমী জাতি না-জানি কবে রোবটকে বিয়ে করার আইন সে দেশের পার্লামেন্টে পাশ করে!

অবশ্য এই নিয়ে সৌদি আরব সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিতর্কের ঝড় উঠেছে। কিন্তু এ ঘটনায় বাংলাদেশের কারো কোন টু শব্দ করতে দেখলাম না। ওহ্, আমি তো ভুলেই গিয়েছিলাম, বাঙালির ঈমানী শক্তি শুধু নিরীহ হতদরিদ্র হিন্দু পল্লীর জন্য সংরক্ষিত থাকে!

লেখকের ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে নেওয়া

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত