ঢাকা, রবিবার, ২৭ মে ২০১৮, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ অাপডেট : ২ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ২১ জানুয়ারি ২০১৮, ১১:৫৩

প্রিন্ট

শচীনপুত্র অর্জুনকে ওয়াসিম আকরামের বোলিং টিপস

শচীনপুত্র অর্জুনকে ওয়াসিম আকরামের বোলিং টিপস
স্পোর্টস ডেস্ক

ভারতের ক্রিকেট কিংবদন্তী শচীন টেন্ডুলকারের ছেলে অর্জুনও ক্রিকেটার হিসেবে নাম করতে শুরু করেছেন। অর্জুন প্রধানত একজন বাঁ-হাতি ফাস্ট বোলার, তার বাবার মতো ব্যাটসম্যান নন। কিন্তু তার ব্যাটিংও মন্দ নয়।

গত সপ্তাহে অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে অর্জুন টেন্ডুলকার ক্রিকেট ক্লাব অব ইন্ডিয়া নামের একটি দলের পক্ষ হয়ে একটি টি২০ ম্যাচ খেলেছেন এবং তাতে তিনি চারটি উইকেট নিয়েছেন, আর ২৭ বলে ৪৮ রান করেছেন। এই টি২০ ম্যাচে তার ব্যাটিং-বোলিং দুটোই সমালোচকদের নজর কেড়েছে।

বিখ্যাত পিতার যোগ্য উত্তরাধিকারী হওয়া সহজ কাজ নয়। কিন্তু ভারতের কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকারের ১৮ বছরের ছেলে এই অর্জুনের খেলা দেখে আজকাল অনেকেই বলতে শুরু করেছেন, হয়তো যাকে সহজ বাংলায় বলে 'বাপ কা বেটা' - সেটাই হয়ে ওঠার সম্ভাবনা আছে তার ।

অস্ট্রেলিয়ান এবিসি টিভির নিক রাইনবার্গারকে এক সাক্ষাৎকার অর্জুন জানান, ছোটবেলা থেকেই তিনি খেলা-পাগল। অনেক ধরণের খেলা খেলেছি - ফুটবল, সাঁতার, তায়েকান্ডো, আর ক্রিকেট। একজন রানারও ছিলাম আমি। আমার বাবা আমাকে সাহায্য করেছেন, কিন্তু আমি কি খেলবো তা তিনি বলে দেন নি। আমিই ঠিক করেছি। এখন আমি ক্রিকেটেই একটা ক্যারিয়ার গড়তে চাই, এজন্য অনেক পরিশ্রমও করছি আমি।"

ভারতে একজন ক্রিকেটারের সর্বোচ্চ স্তরে ওঠা খুব কঠিন। আপনাকে শুধু নির্বাচকদের নজর কাড়ার জন্যই কয়েক মৌসুম ধরে ধারাবাহিক ভাবে ভালো খেলে যেতে হবে - ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়া তো বহু দুরের কথা।

মাঝখানে এক-দুই বছর ভালো না খেললেই আপনি শেষ, বলছিলেন অর্জুন টেন্ডুলকার।

"আমি বয়েস বাড়ার সাথে সাথে লম্বা হয়েছি, শক্তিশালী হয়েছি। তখন থেকেই আমি জোরে বল করতে খুব ভালোবাসতাম। আমি ঠিক করলাম, আমি ফাস্ট বোলারই হবো। কারণ ফাস্ট বোলার ভারতে বেশি নেই।"

অর্জুন টেন্ডুলকার সাক্ষাৎকারে বলছিলেন তার আদর্শ ক্রিকেটার কারা। "বোলার হিসেবে আমার আদর্শ জহীর খান, মিচেল জনসন, মাইকেল স্টার্ক, আর ওয়াসিম আকরাম। এদের অনেকের সাথেই আমার পরিচিত হবার সৌভাগ্য হয়েছে।"

"ওয়াসিম আকরাম আমাকে শিখিয়েছেন, সুইং করতে হলে কিভাবে বলটাকে ধরতে হয়। বলের শাইন কিভাবে রাখতে হয় - সেটাও শিখিয়েছেন তিনি। তিনি শিখিয়েছেন বল চকচকে করার জন্য মুখের লালা ব্যবহার করতে এবং তার পর সেটা শুকিয়ে গেলে ট্রাউজারে ঘষতে হবে। কিন্তু ঘাম ব্যবহার করা চলবে না।"

"অবশ্য মজার ব্যাপার হলো, আমার দলের মধ্যে আমারই সবচেয়ে বেশি ঘাম হয়।"

অর্জুন টেন্ডুলকার বলছিলেন, তার বাবা কিভাবে তাকে উপদেশ-পরামর্শ দিয়েছেন। "আমার বাবা আমাকে একটা উপদেশই দিয়েছেন, নির্ভয়ে খেলো, নিয়ম মেনে খেলো, আর দলের জন্য খেলো।"

"আমি কোন মানসিক চাপে থাকি না। বল করার সময় জোরে বল করি, ব্যাট করার সময় শট খেলি, তবে মাথায় রাখি কোন বোলারকে মারতে হবে, কাকে নয়।"

"টেস্ট খেলতে গেলে আমি শুধু একজন ফাস্ট বোলারই হতে চাইবো। কিন্তু টি২০ এমন খেলা যাতে আপনি একটা ভালো ইয়র্কার বলেও মার খাবেন। তবে টি২০-তে ব্যাটিং করা আমি পছন্দ করি, কারণ সেখানে ইচ্ছেমত পিটিয়ে খেলা যায়।"

সূত্র: বিবিসি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত