ঢাকা, বুধবার, ১৮ জুলাই ২০১৮, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫ অাপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২২ জুন ২০১৮, ১৫:৪৪

প্রিন্ট

চাপে থাকা ব্রাজিলের মূল ভরসা নেইমার

চাপে থাকা ব্রাজিলের মূল ভরসা নেইমার
স্পোর্টস ডেস্ক

গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ কোস্টারিকার মোকাবেলা করবে ব্রাজিল। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টায় সেন্ট পিটার্সবার্গে অনুষ্ঠিত হবে 'ই' গ্রুপের ম্যাচটি। প্রথম ম্যাচে পয়েন্ট খোয়ানোর কারণে চাপে থাকা ব্রাজিলের এখনো মুল ভরসা নেইমার। তবে ইনজুরির আশংকায় থাকা নেইমার যদি কোন কারণে মাঠে নামতে ব্যর্থ হন তখন তার ভুমিকাটি বর্তাবে কৌতিনহোর উপর।

তবে এখনো পর্যন্ত ব্রাজিলকে বিশ্বকাপের লড়াইয়ে ফেরানোর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন নেইমার। আজ কোস্টারিকার বিপক্ষে জয় ছাড়া কিছু ভাবছেনা তারা। যদিও গত রোববার প্রথম ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি বিশ্বের সবচেয়ে দামী ফুটবলার। ১-১ গোলে ড্র হওয়া ম্যাচে ১০বার ফাউলের শিকার হয়েছেন নেইমার। বিশ্বকাপের বিগত ২০ বছরের ইতিহাসে কোন একজন খেলোয়াড় এত ফাউলের শিকার হননি।

এরপর গত মঙ্গলবার দলীয় অনুশীলনে যোগ না দেয়ায় নেইমারকে ঘিরে শংকা বাড়তে থাকে। তবে সেন্ট পিটার্সবার্গের আসন্ন ম্যাচের আগে তিনি আবারো অনুশীলনে ফেরায় আপাতত স্বস্তি এসেছে সেলেকাও সমর্থকদের মাঝে। দীর্ঘ তিনমাস ইনজুরিতে কাটানো নেইমারকে নিয়ে এর আগমুহুর্ত পর্যন্ত ছিল চরম উৎকন্ঠা। পায়ের ভেঙ্গে যাওয়া হাড়ে অস্ত্রোপাচারের পর সুইজাল্যান্ডের বিপক্ষের ম্যাচটিই ছিল আনুমানিক চার মাসের মধ্যে নেইমারের প্রথম কোন প্রতিযোগিতা মুলক ম্যাচে অংশগ্রহণ। গত ফেব্রুয়ারিতে প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের হয়ে ক্লাব ফুটবলে অংশগ্রহনের সময় এই গুরুতর ইনজুরিতে পড়েছিলেন নেইমার।

যে কারণে নেইমারের অনুশীলনের ঘাটতি নিয়েও কথা উঠেছে। সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ব্রাজিল সমর্থকরা নেইমারের চমক দেখতে চেয়েছিল। কিন্তু তাদের জমাট রক্ষনভাগে কোনভাবেই ভাঙ্গন ধরাতে পারেননি নেইমার। বরং ব্রাজিলের হয়ে শুরুতে প্রথম গোলটি করেছিলেন কৌতিনহো। কাল যদি নেইমার পুরো ফিটনেস লাভ করতে ব্যর্থ হন তাহলে আবারো কৌতিনহোকেই এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে ব্রাজিলকে। অবশ্য ব্রাজিলের বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্নটিও আবর্তিত হচ্ছে নেইমার ও কুটিনহোকে ঘিরে।

কৌতিনহো বলেন, ‘নেইমার হচ্ছেন বিশ্বের সেরা ফুটবলারদের একজন। তিনি দলে থাকা মানে আমাদের জন্য ইতিবাচক দিক। তিনি খুবই গুরুত্বপুর্ন। সারাক্ষণ খেলার ক্ষেত্র সৃস্টি করে দেন।’

চার বছর আগে এই কোস্টারিকা ইংল্যান্ড, ইতালী ও উরুগুয়েকে হারিয়ে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছিল। জয়ের মাধ্যমে নিজেদের চাপমুক্ত করার ম্যাচে ব্রাজিল পেয়েছে একটি শক্তিশালী প্রতিপক্ষ কোস্টারিকাকে। যারা ১৯৬০ সালের পর ১০ মোকাবেলায় একবার মাত্র ব্রাজিলকে হারাতে পেরেছিল। তবে এবারের আসরের প্রথম ম্যাচে সার্বিয়ার কাছে ১-০ গোলে হেরে যাওয়ায় কালকের ম্যাচটিও তাদের জন্য বাঁচা-মরার লড়াইয়ে পরিণত হয়েছে।

অবশ্য বিশ্বকাপের লড়াইয়ে নামার আগে অনুশীলন ম্যাচেও বেশ বড় ব্যবধানে বেলজিয়াম ও ইংল্যান্ডের কাছে হেরেছে কোস্টারিকা। তবে অধিনায়ক ব্রায়ান রুইজ মনে করেন সুইজারল্যান্ডের দৃস্টান্ত অনুসরণ করে তারাও আপসেট ঘটাতে পারবে। স্পোর্টিং লিসবনের এই স্ট্রাইকার বলেন, ‘সুইজারল্যান্ড মধ্যমাঠে ব্রাজিলকে চেপের রেখেছিল। সবাই জানে এই মধ্যমাঠ থেকেই ব্রাজিলের আক্রমনভাগের ভীত রচিত হয়। আমাদেরকে খুব দ্রুত বলের দখল নিতে হবে এবং প্রতি আক্রমন রচনা করতে হবে।’

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত