ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ২ কার্তিক ১৪২৫ অাপডেট : ১১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:১৬

প্রিন্ট

তিন উইকেট হারিয়ে চাপে বাংলাদেশ

তিন উইকেট হারিয়ে চাপে বাংলাদেশ
স্পোর্টস ডেস্ক

২৫৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই চাপে পড়েছে বাংলাদেশ। ওপেনিংয়ে লিটন দাসের সঙ্গী হন নাজমুল হোসেন শান্ত। ইনিংসের চতুর্থ ওভারে ব্যক্তিগত ৭ রানে অভিষিক্ত শান্তকে ফিরিয়ে দেন মুজীব উর রহমান। এরপর দলের স্কোরকার্ডে ২ রান যোগ হতেই দলীয় ১৭ রানে আফতাবের এলবিডব্লিউয়ের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন লিটন দাশ। এরপর সাকিবের সঙ্গে ব্যাটিংয়ে আসেন মুমিনুল হক। দলীয় ৩৯ রানে গুলবাদিন নাইবের বলে উইকেটরক্ষক শাহজাদের হাতে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ৯ রানেই ফেরেন তিনি। এরপর স্কোরকার্ডে ৪ রান যোগ হতেই গুলবাদিন নাইবের বলে বোল্ড হয়ে ফিরে যান আগের ম্যাচে দুর্দান্ত খেলা মিঠুন।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৪.১ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪৩ রান।

এর আগে আবুধাবীতে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আফগানিস্তানের দলপতি আসগর আফগান। বিকাল সাড়ে ৫টায় মাঠে নেমেছে দুই দল। আজকের ম্যাচ দিয়েই অভিষিক্ত হয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও আবু হায়দার রনি। নাজমুল হোসেন শান্ত এর আগে জাতীয় দলের হয়ে একটি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। আর আবু হায়দার রনি জাতীয় দলের হয়ে এখন পর্যন্ত দশটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন।

শুরুতেই আঘাত হানলেন আবু হায়দার রনি। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে মোহাম্মদ মিথুনের হাতে ক্যাচ বানিয়ে আফগান ওপেনার ইহসানুল্লাহকে সাজঘরে ফিরিয়ে দিয়েছে তিনি। চার বলে আট রান করেছেন ইহসানুল্লাহ। ওয়ানডে ক্রিকেটে রনির এটি প্রথম উইকেট। আফগান শিবিরে পরের আঘাতটিও আনেন অভিষিক্ত রনি। নিজের তৃতীয় ওভারের শেষ বলে দুর্দান্ত ডেলিভারিতে বোল্ড করেন রহমত শাহকে। সাজঘরে ফেরার আগে ১৭ বলে ১০ রান তুলেন রহমত।

দুই উইকেট হারিয়েই শাহজাদ ও শাহিদির জুটিতে খেলায় ফিরতে শুরু করল আফগানিস্তান। কিন্তু ইনিংসের ২০তম ওভারে নিজের প্রথম ওভার শুরু করেই শাহজাদকে ফেরালেন সাকিব আল হাসান। ওভারের তৃতীয় বলে আবু হায়দার রনির হাতে ব্যক্তিগত ৩৭ রানে ক্যাচ হয়েছেন মোহাম্মদ শাহজাদ।

দলীয় ১০১ রানে আফগান শিবিরে নিজের দ্বিতীয় আঘাত হানেন সাকিব। দুর্দান্ত ডেলিভারিতে বোল্ড করেন আফগানিস্তান অধিনায়ক আসগর আফগানকে। এরপর আফগানিস্তানের দলীয় ১৩৯ রানে ফের আঘাত হানে টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এবারের শিকার সামিউল্লাহ শেনওয়ারি। আফগানিস্তানের সবাই আসা যাওয়ার মধ্যে থাকলেও ব্যতিক্রম ছিলেন হাশমতউল্লাহ শাহিদি। তবে দলীয় ১৫০ রানে ব্যক্তিগত ৫৮ রান করে রুবেলের বলে লিটনের ক্যাচ হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন শাহিদি।

মোহাম্মদ নবীকে ফিরিয়ে নিজের চতুর্থ উইকেট শিকার করলেন টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। দলীয় ১৬০ রানে এলবিডব্লিউতে নবীকে ফিরিয়েছেন সাকিব।

১৬০ রানে সপ্তম উইকেট পতনের পর অষ্টম উইকেট জুটিতে দলের স্কোর দুইশ পার করেছেন গুলবাদিন নাইব ও রশিদ খান। দুজনের জুটি হয়েছে ৯৫ রানের। নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে আফগানিস্তানের স্কোর ৭ উইকেটে ২৫৫। জিততে হলে বাংলাদেশকে তুলতে হবে ২৫৬।

এশিয়া কাপের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আজ মুখোমুখি হয়েছে আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ। গ্রুপ পর্ব শেষ না হতেই সুপার ফোর নিশ্চিত দুই দলের। তাই আজকের ম্যাচটি পরিণত হয়েছে নিয়মরক্ষার ম্যাচ হিসেবে। তবে বাংলাদেশের জন্য এটি একপ্রকার প্রতিশোধের ম্যাচও। কারণ আফগানিস্তানের বিপক্ষে শেষ সিরিজে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে হোয়াইটওয়াশ হতে হয়েছে বাংলাদেশকে। তাই আফগানিস্তানকে কোন ছাড় দিতে রাজি নয় মাশরাফিরা।

বাংলাদেশের একাদশ:

মাশরাফি বিন মর্তুজা, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), নাজমুল হাসান শান্ত, মমিনুল হক, মোহাম্মদ মিঠুন, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, আবু হায়দার রনি ও রুবেল হোসেন।

আফগানিস্তানের একাদশ:

আসগর আফগান (অধিনায়ক), মোহাম্মদ শাহজাদ (উইকেটরক্ষক), রহমত শাহ, হাশমতউল্লাহ শাহিদি, সামিউল্লাহ শেনওয়ারি, মোহাম্মদ নবী, গুলবাদিন নাইব, রশিদ খান, মুজীর উর রহমান, আফতাব আলম এবং ইসানুল্লাহ জানাত।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত