ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫ অাপডেট : ১০ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৬:৩০

প্রিন্ট

টিনেজ প্রেমে বেশি মার খায় কিশোররা

টিনেজ প্রেমে বেশি মার খায় কিশোররা
জার্নাল ডেস্ক

টিনেজ বা বয়ঃসন্ধিকালীন প্রেম তো সবার জীবনেই আসে। এই প্রেমের অনুভূতি হয় একেবারেই আলাদা। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে মারামারি বা ভায়োলেন্সের ঘটনাও ঘটে।

কানাডার ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়া (ইউবিসি) ও সিমন ফ্রেজার ইউনিভার্সিটি (এসএফইউ)-র গবেষণায় কিন্তু ডেটিং ভায়োলেন্স-এর ছবি ওঠে এসেছে।

সম্প্রতি জার্নাল অব ইন্টারপার্সোনাল ভায়োলেন্স-এ এদের যৌথ গবেষণা প্রকাশিত হয়। তাতে দাবি করা হয়, টিনেজে বিশেষ করে বয়ঃসন্ধির সম্পর্কে মার খাওয়া বা শারীরিক নিগ্রহে বেশি শিকার হয় ছেলেরাই।

গবেষকদের পরিসংখ্যান অনুযায়ী,২০১৭-তে ৫.৮ শতাংশ কিশোর প্রেমিকার হাতে মার খেয়েছে। মেয়েদের ক্ষেত্রে এই হার শতকরা ৪.২ শতাংশ। যদিও ২০০৩ সালে এই ধরনের অভিযোগ জমা হয়েছিল ২০১৩ সালে তা কিছু কমেছে।

সিমন ফ্রেজার ইউনিভার্সিটির অন্যতম গবেষক ক্যাথরিন শাফারের মতে, বিশ্বের প্রায় সব দেশের সমাজ ব্যবস্থাতেই মেয়েদের গায়ে হাত দেয়া নিয়ে আইনি ব্যবস্থা আছে। ছেলেদের গায়ে হাত তোলা নিয়ে সেসব আইন অনেকটাই শিথিল।

এই ধরনের ছেলেদের মধ্যে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে আত্মহত্যার প্রবণতাও বাড়ে। তবে দশ বছরের ব্যবধানে এই পরিসংখ্যান কমায় সুস্থ সম্পর্কের জোর বাড়ছে বলেই দাবি গবেষকদের।

প্রথমে কানাডা ও পরে উত্তর আমেরিকা জুড়ে এই গবেষণা চালান গবেষকরা। ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়ার বয়ঃসন্ধিকালীন স্বাস্থ্য জরিপে অংশ নিয়েছিল ৭ থেকে ১২ বছর বয়সী প্রায় ৩৫,৯০০ জন কিশোর-কিশোরী। তাদের ব্যবহার, অভিজ্ঞতা, আবেগ ও সম্পর্ক নিয়ে মনোভাবের উপর ভিত্তি করেই রিপোর্ট তৈরি করেন গবেষকরা।

ইউবিসি-র গবেষক এলিজাবেথ সিউইক জানান, আমাদের ধারণা সম্পর্কের ক্ষেত্রে সাধারণত, মেয়েরাই বেশি নরম অবস্থান নেন ও সম্পর্ককে নিয়ন্ত্রণ করেন ছেলেরাই। কিন্তু এই জরিপ ধারণার উল্টো দিকটাই স্পষ্ট করছে।

আরএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত