ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ জুলাই ২০২০, ১৯ আষাঢ় ১৪২৭ আপডেট : ৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ৩০ মে ২০২০, ১৮:০৩

প্রিন্ট

দুই ফেরিঘাটে বেড়েই চলছে যাত্রীদের চাপ

দুই ফেরিঘাটে বেড়েই চলছে যাত্রীদের চাপ
মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রিয়জনের সা‌থে ঈদের আনন্দ শেষে জীবিকার তাগি‌দে কর্মস্থল ঢাকায় ফিরছে সবাই। শনিবার দেশের বৃহৎ দুই ফেরিঘাটে ব্যক্তিগত ও পণ্যবাহী গাড়িসহ সাধারণ মানুষের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে।

রাজবাড়ীর দৌলত‌দিয়া-পাটুরিয়া নৌ-পথ দিয়ে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় কর্মের উদ্দেশে ছুটছেন হাজার হাজার মানুষ। ঘাট দি‌য়ে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি ব্যক্তিগত যানবাহন, মাইক্রোবাস ও পণ্যবাহী ট্রাকের চাপ দেখা গেছে অন্যান্য দিনের তুলনায় কয়েকগুন বেশি।

এ সময় সামা‌জিক দূরত্ব নি‌শ্চিত কর‌তে কাজ কর‌তে দেখা গেছে দৌলতদিয়া ঘাট থানার পুলিশ সদস্যদের। তবে গণপরিবহন না থাকায় পথে পথে ভোগান্তি ও বেশি ভাড়া দিয়ে দৌলতদিয়া হয়ে ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে যাচ্ছেন তারা।

শনিবার সকাল থেকেই দৌলতদিয়া ফেরি ঘাট এলাকায় ঢাকামুখী যাত্রদের পাশাপাশি ও বিভিন্ন ধরনের ব্যক্তিগত ও পণ্যবাহী যানবাহনের উপচেপড়া ভিড় ছিল চো‌খে পড়ার মতো। এ‌দি‌কে গণপরিবহন বন্ধ থাকার কারণে প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, অটোরিক্সা, মোটরসাইকেলসহ বি‌ভিন্ন মাধ্যমে ভোগান্তির মধ্য দিয়ে কয়েকগুন বেশি ভাড়া দিয়ে দৌলত‌দিয়ায় আস‌ছে যাত্রীরা। তবে যাত্রীদের মধ্যে কোন ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মানার লক্ষণ দেখা যায়নি। মানুষের চাপে স্বাস্থ্য সচেতনতা যেন চাপা পড়ে গেছে।

যাত্রীরা বল‌ছেন, কর্মের উদ্দেশে নিজে বাঁচতে ও চাকরি বাঁচা‌তে ঝুঁকি নি‌য়ে তারা ঢাকায় যা‌চ্ছেন। এ সময় সড়‌কে গণপ‌রিবহন না থাকায় পথে পথে ভোগা‌ন্তি পোহা‌তে হয় তা‌দের এবং সেইসাথে দি‌তে হচ্ছে বাড়‌তি কয়েকগুন ভাড়া।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ও‌সি আ‌শিকুর রহমান জানান, ঈ‌দে যারা বাড়ি‌তে এ‌সে‌ছি‌লে, তারা ঢাকায় ফির‌ছেন। যে কারণে দৌলত‌দিয়া পা‌য়ে হাটা যাত্রী ও ছোট গা‌ড়ির চাপ র‌য়ে‌ছে। সামা‌জিক দূরত্ব নি‌শ্চিত কর‌তে কাজ কর‌ছেন এবং ফে‌রিগুলোতে কম সংখ্যক যাত্রীদের স্বস্থ্যবিধি মেনে চলতে উঠতে দেয়া হচ্ছে না।

বিআইডব্লিউটিসি কতৃপক্ষ জানায়, এই রুটে ছোট-বড় ১৪টি ফেরির মধ্যে আজ ৯টি ফেরি দিয়ে যানবাহন ও সাধারণ মানুষ পারাপার করা হচ্ছে। ৬টি ফেরিঘাটের মধ্যে ৩টি ফেরিঘাট সচল রয়েছে। বর্তমানে এই তিনটি ঘাট দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। যানবাহনের চাপ বেশি হলে ফেরির সংখ্যা বাড়িয়ে যানবাহন ও যাত্রী পারাপার করা হবে।

অন্যদিকে,কর্মমুখী মানুষের চাপ কমেনি মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে। ঈদের পরের কয়েক দিনের মতো আজও এই ঘাটে অনেক ভিড় দেখা গেছে।

শনিবার সকাল থেকেই ফেরিতে গাদাগাদি করে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে পদ্মার ৯ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে শিমুলিয়ায় এসে যাত্রীরা ছুটছে ঢাকার উদ্দেশ্য।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক ফয়সাল হোসেন জানান, ঘাটে ফেরির সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। ১৫টি ফেরিতে এই রুটের যানবাহন ও যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ঢাকা ছেড়ে যাওয়া মানুষের সংখ্যা তুলনামূলক কম থাকায় ব্যক্তিগত গাড়িগুলোকে খুব বেশি সময় অপেক্ষা করতে হচ্ছে না। স্বল্প সময়েই ফেরিতে চড়ে কাঁঠালবাড়ি যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছে যানবাহনগুলো। তবে গনপরিবহণ না থাকায় অনেকটা দুর্ভোগ নিয়েই অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে যাত্রীদের পৌঁছাতে হচ্ছে গন্তব্যে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত