ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৭ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ০৬ জুন ২০২০, ০০:৪৭

প্রিন্ট

ন্যাপ সভাপতিসহ ১০ বাংলাদেশি ভারত থেকে ফিরলেন

ন্যাপ সভাপতিসহ ১০ বাংলাদেশি ভারত থেকে ফিরলেন
সিলেট প্রতিনিধি

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাবের কারণে চলমান লকডাউনে ভারতের গৌহাটিতে আটকে পড়া ন্যাপ সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্জসহ ১০ বাংলাদেশি সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার তামাবিল ইমিগ্রেশন দিয়ে দেশে ফিরেছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় তামাবিল ইমিগ্রেশন হয়ে তারা দেশে ফেরেন।

জানা যায়, ভারতের গোহাটিতে স্ত্রীকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান বাংলাদেশের ন্যাপ সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্জ। পরে সেখানে একটি মেডিকেলে চিকিৎসারত অবস্থায় প্রায় মাসখানেক আগে তার স্ত্রী মৌসুমি দাশ মারা যান। এরপর সেখানেই তার মরদেহের শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়।

অবশেষে করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে দীর্ঘদিন আটকে থাকার পর আজ শুক্রবার ন্যাপ সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্য দেশে ফেরেন। একই সময়ে দেশে ফেরেন ভারতের বিভিন্ন এলাকায় আটকে পড়া আরও ৯ বাংলাদেশি।

তারা হলেন, মতিউর রহমান চৌধুরী, ফখরুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম, সৈকত চন্দ্র সিনহা, রঞ্জন শিংলা, সিপেনসন সুইটিং, মনির হোসাইন, মঞ্জিলা বেগম এবং আব্দুর রাজ্জাক।

তামাবিল ইমিগ্রেশন সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ইমিগ্রেশন সুবিধা বন্ধ থাকায় ভ্রমণ ভিসায় ভারতে গিয়ে বাংলাদেশের ন্যাপ সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্জসহ ১০ বাংলাদেশি ভারতের বিভিন্ন যায়গায় আটকা পড়েন। দুই দেশের সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের যোগাযোগের মাধ্যমে আবেদন করা ওই ১০ নাগরিককে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে।

এ সময় বিজিবি, ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস এর দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তামাবিল স্থলবন্দরে নিয়োজিত মেডিকেল টিমের দায়িত্বে থাকা গোয়াইনঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রাশেদুল ইসলাম বলেন, ভারত থেকে দেশে ফেরা ১০ বাংলাদেশি নাগরিকদের মধ্যে ছিলেন বাংলাদেশের ন্যাপ সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্জ। তামাবিল ইমিগ্রেশন হয়ে দেশের অভ্যন্তরে প্রবেশের পর প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষায় করে তাদের মধ্যে করোনা ভাইরাসের কোনো উপসর্গ পাওয়া যায়নি। তারা সকলেই শারীরিকভাবে সুস্থ রয়েছেন।

এ বিষয়ে তামাবিল স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশের ইনচার্জ (এসআই) সৈয়দ মওদুদ আহমেদ রুমি বলেন, স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন কার্যক্রম প্রায় দুই মাস ধরে বন্ধ ধরে রয়েছে।

যে কারণে বিভিন্ন সময়ে বিজনেস, ভ্রমণ ও স্টুডেন্ট ভিসায় ভারতে গিয়ে বাংলাদেশের কিছু নাগরিক আটকে পড়েছিলেন। তারা দূতাবাসের মাধ্যমে সরকারের শীর্ষ পর্যায়ে যোগাযোগ করে পর্যায়ক্রমে দেশে ফিরছেন। এরই ধারাবাহিকতায় আজকেও বাংলাদেশ ন্যাপ সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্জ মহোদয়সহ ১০ বাংলাদেশি তামাবিল ইমিগ্রেশন দিয়ে দেশে ফিরছেন। দেশে ফেরত আসা বাংলাদেশিদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়ে বাড়ি যাওয়ার সুযোগ করে দেয়া হয়েছে।

এর আগে গত ২ মে ১ নারীসহ ১১ জন ও ২৮ মে ৪ জন এবং ৩ জুন আরও দুই বাংলাদেশি তামাবিল দিয়ে দেশে ফিরেছেন বলেও তিনি জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/আর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত