ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৭ কার্তিক ১৪২৭ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:০৭

প্রিন্ট

সোনা মসজিদ দিয়ে আসা বেশিরভাগ পেঁয়াজই পচা

সোনা মসজিদ দিয়ে আসা বেশিরভাগ পেঁয়াজই পচা
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

এলসির বিপরীতে আটকে পড়া পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। শনিবার (পাঁচ দিন পর) আটকে পড়া সেই ২১৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে। তবে আমদানিকৃত পেঁয়াজের বেশিরভাগই নষ্ট হয়ে গেছে। এরফলে ব্যবসায়ীরা আর্থিকভাবে ব্যাপক লোকসানের আশঙ্কা করছেন।

শনিবার বেলা ১১টায় সোনামসজিদ স্থল বন্দর দিয়ে এসব পেঁয়াজ আমদানি করা হয় বলে বাংলাদেশ জার্নালকে নিশ্চিত করেছেন শুল্ক স্টেশনের সহকারী কাস্টমস কমিশনার সাইফুর রহমান।

সাইফুর রহমান জানান, বিকেল পর্যন্ত ৮টি ট্রাকে ২১৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে।

এবিষয়ে সোনামসজিদ স্থলবন্দর আমদানি রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি তৌফিুকর রহমান বলেন, গত ১৪ সেপ্টেম্বরের আগে খোলা এলসির বিপরীতে আটকে পড়া পেঁয়াজ ভারতীয় কর্তৃপক্ষ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে। সেই আটকে পড়া ২১৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজই মূলত আমদানি হয়েছে।

এদিকে আমদানিকৃত পেঁয়াজের অধিকাংশ পেঁয়াজই পচে নষ্ট হয়ে গেছে। এরফলে ব্যবসায়ী আর্থিকভাবে ব্যাপক লোকসানের মুখে পড়বেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এবিষয়ে পানামা পোর্টলিংক লিমিটেডের পোর্ট ম্যানেজার মাইনুল ইসলাম বলেন, আমদানিকৃত পেঁয়াজের অধিকাংশই পচে নষ্ট হয়ে গেছে। এরফলে ব্যবসায়ীরা বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

মাইনুল জানান, ভারতের ওপারে মহদীপুর স্থলবন্দরে আটকে পড়ে পেঁয়াজের গাড়িগুলো পরবর্তী এলসিতে আসার অপেক্ষায় আছে। যদিও পেঁয়াজগুলো পচে যাওয়ায় কারণে এবং ভারতীয় কর্তৃপক্ষের অনুমতি না পাওয়ায় বেশিরভাগ গাড়িই ফিরে যাচ্ছে।

অন্যদিকে বন্দরে পেঁয়াজের গাড়ি প্রবেশের খবরে স্থানীয় বাজারে পেঁয়াজের মূল্য কেজি প্রতি ১০ টাকা কমে গেছে। আজ বাজারে ৫০ থেকে ৫৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। তবে ওপারে কী পরিমাণ গাড়ি আটকা পড়েছে বন্দর সংশ্লিষ্ট কেউই তার সঠিক তথ্য দিতে পারেনি। এমনকি আগামীকাল পেঁয়াজ আমদানি হবে কিনা সে বিষয়টিও নিশ্চিত করতে পারেনি বন্দর কর্তৃপক্ষ।

আরো পড়ুন

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে দেশে আসছে পেঁয়াজ

মিয়ানমার থেকে এলো ৩০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ

বাংলাদেশ জার্নাল/কেএস/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত