ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৭ কার্তিক ১৪২৭ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:৪০

প্রিন্ট

চালের দাম বাড়ায় বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ

চালের দাম বাড়ায় বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ
সৌরভ ঘোষ, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামে চালের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় নিম্ন আয়ের মানুষ বিপাকে পড়েছে। গত এক সপ্তাহে সব ধরনের চালের দাম কেজি প্রতি ৪ থেকে ৫ টাকা করে খুচরা বাজারে বেড়েছে। আর পাইকারী বাজারে ৫০ কেজির বস্তা প্রতি ১৫০ থেকে ২০০ টাকা বেড়েছে।

সরেজমিনে চালের বাজারে দেখা গেছে, বাজারে মোটা ও স্বর্ণা চাল নেই। আর এই সুযোগে খুচরা বাজারে ২৮ চাল ৪৮ টাকা, জিরা শাইল ৫০ টাকা, মিনিকেট ৫৬ টাকা এবং মিনিকাটারী ৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এবিষয়ে ক্রেতাদের ভাষ্য, করোনা ও বন্যার সময় আলু, পেঁয়াজ এবং সবজির মত চালের দামও যদি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায় তাহলে কষ্টের আর শেষ থাকে না!

এদিকে পাইকারী বাজারে গত এক সপ্তাহে চালের দাম ২৮ চাল ৫০ কেজির প্রতি বস্তা ১৫০ টাকা বেড়ে ২২৫০ টাকা, জিরা শাইল ২ শ টাকা বেড়ে ২৩৫০ টাকা, মিনিকেট ২৩০০ টাকা থেকে বেড়ে ২৫৫০ টাকা এবং মিনিকাটারী ২২৫০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।

বৃষ্টি আর বন্যার কারণে চালের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে বলে মনে করেন পাইকারী ব্যবসায়ীরা। তারা বলেন, বেশির ভাগ চাল আসে দিনাজপুর থেকে। সেখানেই বস্তা প্রতি ১৫০ থেকে ২০০ টাকা বেশি নেয়া হচ্ছে। আর ধান পাওয়া যাচ্ছে না। এছাড়া মোকামে চালের দাম বেশি হওয়ায় তার প্রভাব খুচরা বাজারে পড়ছে।

এবিষয়ে ভোক্তা অধিকারের নেতা ও গণকমিটির সাবেক সভাপতি তাজুল ইসলাম বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, কুড়িগ্রামে থেকেই প্রতিদিন ট্রাকে ট্রাকে চাল অন্য জেলায় যায়। সেখানে কুড়িগ্রামে হঠাৎ করে চালের দাম বৃদ্ধিকে অবাস্তব।

তবে একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, সরকারি খাদ্যগুদামে প্রতি কেজি চাল ৩৮ টাকা কেজি দরে কেনায় বাজারে মোটা ধানের কৃত্রিম সঙ্কট কাজে লাগিয়ে ব্যবসায়ীরা চালের বাজার অস্থির করে তুলছে।

আরো পড়ুন

চালের দাম বাড়ালে কঠোর ব্যবস্থা: খাদ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ জার্নাল/কেএস/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত