ঢাকা, সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৭:১৩

প্রিন্ট

ভোলায় চোর অপবাদে ব্যবসায়ীকে নির্যাতন

ভোলায় চোর অপবাদে ব্যবসায়ীকে নির্যাতন
ছবি: প্রতিনিধি

ভোলা প্রতিনিধি

গরু নিয়ে শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার সময় ভোলার বোরহান উদ্দিনের কুতুবা ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডে চোর অপবাদ দিয়ে দড়ি দিয়ে বেঁধে ইয়ামিন কাজী (৩২) নামে এক মুদি ব্যবসায়ীকে নির্যাতন করার ঘটনা ঘটেছে।

রোববার নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় ওই ব্যবসায়ীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।

ইয়ামিন কাজী একই উপজেলার দেউলা কাজি বাড়ির শহীদুল হক কাজীর ছেলে। এদিকে এ ঘটনায় চার দিন পর বোরহান উদ্দিন থানায় মামলা হলে পুলিশ এর সাথে জড়িত আলম (৩০) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গত মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) সকালে ব্যবসায়ী ইয়ামিন বাড়ি থেকে অটোরিকশা করে ২টি গরু নিয়ে তার শ্বশুর ছিদ্দিক মাতাব্বরের বাড়িতে রওনা হয়। পথে শান্তির হাট বাজারের পূর্বপাশে পদ্মা ব্রিকসের সামনে স্থানীয় ২০/২৫ জন লোক অটোরিকশার এর গতিরোধ করে এবং তারা গাড়িতে থাকা গরু ২টি নিয়ে যেতে টানা টানি শুরু করেন। এ সময় ইয়ামিন গরু দিতে অস্বীকৃতি জানালে, তাকে গরু চোর অপবাদ দিয়ে গরুর রশি দিয়ে বেঁধে অমানবিক নির্যাতন চালায়।

পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বোরহান উদ্দিন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেয়া হয়েছে।

এ ঘটনার চার দিন পর শুক্রবার রাতে ওই ব্যবসায়ীর বাবা শহীদুল হক কাজী বাদী হয়ে বোরহান উদ্দিন থানায় একটি মামলাটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ আলম নামে ওই মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তার করে।

তিনি আরো জানান, তার ছেলের অবস্থা ক্রমশ খারাপ হওয়ায় শুক্রবার সকালে চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো ৷ সে এখন বাংলাদেশ মেডিকেলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছে ৷

বোরহান উদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল আমিন জানান, এ ঘটনায় ৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং ৮/১০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে একটি মামলা হয়েছে। ইতিমধ্যে এ ঘটনায় জড়িত আলম নামে এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকীদেরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত