ঢাকা, রোববার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭ আপডেট : ৩৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:৫৩

প্রিন্ট

যশোরে হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

যশোরে হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন
প্রতীকী ছবি

যশোর প্রতিনিধি

যশোর সদরের বাহাদুরপুর গ্রামের শাহাদৎ হোসেন হত্যা মামলায় হারুনার রশীদ নামে একজনের যাবজ্জীবন সাশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় জাকির হোসেনকে নামে অপর একজনকে খালাস দেয়া হয়েছে।

দীর্ঘ ২০ বছর পর বুধবার এক রায়ে বিশেষ দায়রা জজ ও স্পেশাল জজ (জেলা ও দায়রা জজ) আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সামছুল হক এ সাজা দিয়েছেন। সাজাপ্রাপ্ত হারুনার রশীদ বাহাদুরপুর গ্রামের আব্দুল ওহাব মোল্লার ছেলে।

সরকারপক্ষের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট সাজ্জাদ মোস্তফা রাজা জানিয়েছেন, ২০০০ সালের ২৯ আগস্ট রাত ৯টার দিকে শাহাদৎ হোসেন বাহাদুরপুর হাই স্কুলের সামনে একটি চায়ের দোকান থেকে চা পান করে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন। পথিমধ্যে নাজির মতিউর রহমানের বাড়ির সামনে পৌঁছালে পূর্ব শত্রুতার জেরে অপরিচিত ব্যক্তিরা তার গতিরোধ করে কোপতে থাকে। এ সময় শাহাদৎ হামলাকারীদের একটি দা কেড়ে নিয়ে দৌড় দিয়ে মতিউর রহমানের উঠানে গিয়ে পড়ে যান। মতিউর রহমানের বাড়ির লোকজন স্থানীয়দের সহযোগীতায় শাহাদৎকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক শাহাদৎকে মৃত ঘোষণা করেছিলেন।

এ ব্যাপারে নিহত শাহাদৎ এর ভগ্নিপতি যশোর উপশহরের ব্লকের বাসিন্দা ফজলুর রহমান পরদিন কোতয়ালি থানায় অজ্ঞাত আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন।

পরে হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে হারুনার রশীদকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ। আদালতে হারুনার রশীদ ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয় এবং হত্যার কথা স্বীকার করেন।

আসামিদের দেয়া তথ্য ও সাক্ষীদের বক্তব্যে হত্যার সাথে জড়িত থাকায় হারুনার রশীদ ও জাকির হোসেনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট জমা দেন তৎকালীন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই লিয়াকত আলী। হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ না পাওয়ায় ওই সময় আটক আরমান আলী ও মাহমুদুর রহমান নামে দুইজনকে অব্যহতি দেয়া হয়।

এ মামলার দীর্ঘ স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামি হরুনার রশীদের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক তাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন। সাজাপ্রাপ্ত হারুনার রশীদ কারাগারে আটক আছেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত