ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ৪ মিনিট আগে

প্রকাশ : ০২ মার্চ ২০২১, ১৬:৩৪

প্রিন্ট

জয়দেবপুর জংশনে প্যাসেঞ্জার কমিউনিটির অবস্থান ধর্মঘট

জয়দেবপুর জংশনে প্যাসেঞ্জার কমিউনিটির অবস্থান ধর্মঘট
ছবি: প্রতিনিধি

গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুরে ট্রেনের যাত্রাবিরতিসহ ১০ দফা দাবিতে জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনে রেলপথের উপর অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করেছে গাজীপুর প্যাসেঞ্জার কমিউনিটি। এ সময় প্রায় একঘণ্টা চারটি ট্রেন আটকে পড়ে।

মঙ্গলবার সকাল সাতটা থেকে আটটা পর্যন্ত ঘণ্টাব্যাপী জয়দেবপুর জংশনে এ অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচী পালিত হয়।

জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনে সকল আন্ত:নগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি, ট্রেনের বগি বৃদ্ধি, জয়দেবপুর রেল ক্রসিংয়ে ওভার ব্রিজ নির্মাণ, ট্রেনের আসন বৃদ্ধি, জয়দেবপুর রেলজংশনকে আধুনিকায়ন এবং নারী যাত্রীদের জন্য আলাদা বগি সংযোজনসহ ১০ দফা দাবি জানানো হয়।

গাজীপুর প্যাসেঞ্জার কমিউনিটির সভাপতি প্রকৌশলী সামসুল হকের সভাপতিত্বে কর্মসূচি চলাকালে বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযোদ্ধা হাতেম আলী, আওয়ামী লীগ নেতা আরিফুল ইসলাম, হোসনে আরা সিদ্দিকা জুলি, মোহাম্মদ শরীফ হোসাইন প্রমুখ।

এ ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক, ব্যবসায়ী, চাকুরীজীবী, আইনজীবী, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার কয়েকশো নারী-পুরুষ অংশগ্রহণ করে।

সংগঠনটির সভাপতি সামসুল হক বলেন, প্রকৌশলী সামসুল হকের শিল্প শহরের এই স্টেশনে আন্তঃনগর ট্রেন স্টপেজ না দেয়ায় প্রতিদিন দুর্ভোগে পড়ছে হাজার হাজার কর্মজীবী মানুষ। অন্য যে সকল ট্রেন থামে সেগুলো গাদাগাদি করে যাতায়াত করতে হয়। এ ছাড়া ভিড় ঠেলে মহিলাদের জন্য ট্রেনে ভ্রমণ করা অনেকটাই দূরুহ হয়ে উঠেছে। তারপরও যে সকল মহিলারা ট্রেনে চড়তে সক্ষম হন, তারা বিভিন্নভাবে লাঞ্ছিত এবং উত্যক্তের শিকারও হন তারা। তাই তারা ১০ দফা দাবি পূরণের জন্য কর্মসূচী পালন করেছেন, আন্দোলনে নেমেছেন।

জয়দেবপুর জংশনের স্টেশন মাস্টার মো. শাহজাহান জানান, সংগঠনটির কর্মসূচি চলাকালে জয়দেবপুর স্টেশনে ঢাকা ও উত্তরবঙ্গগামী ট্রেন আটকে থাকে। এতে এ স্টেশন থেকে তুরাগ ট্রেন ১ঘন্টা ১০মিনিট, ধূমকেতু ৩৫ মিনিট, একতা ৪৩ মিনিট এবং যমুনা ৫০ মিনিট ছাড়তে বিলম্ব হয়। যাত্রীরা পড়েন ভোগান্তিতে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত