ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ৩ আষাঢ় ১৪২৮ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে

প্রকাশ : ০৫ এপ্রিল ২০২১, ২০:১৫

প্রিন্ট

মৃত্যুও ছাড়াতে পারেনি মায়ের বাঁধন

মৃত্যুও ছাড়াতে পারেনি মায়ের বাঁধন
ছবি- প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

পৃথিবীর মধ্যে মায়ের ভালবাসার যেন কোনো তুলনা হয় না। সকল ভালবাসাতে স্বার্থ থাকলেও মায়ের ভালবাসায় কোনো স্বার্থ থাকে না। একমাত্র মা-ই স্বার্থ ছাড়া ভালবেসে থাকেন তার সন্তানকে। শত কষ্টের মাঝেও মা তার সন্তানের গায়ে একফোঁটা আঁচড় লাগতেও দেয় না।

এমনই একটি বাস্তব চিত্র পরিলক্ষিত হয়েছে নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীতে ডুবে যাওয়া লঞ্চ উদ্ধারের সময়। যেন মৃত্যুও ছাড়াতে পারেনি মায়ের বাঁধন। মা পরম মমতায় তার সন্তানকে আগলে রেখেছেন।

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীতে কোস্টার ট্যাংকারের ধাক্কায় অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে ডুবে যাওয়া ‘সাবিত আল হাসান’ নামে মুন্সিগঞ্জগামী লঞ্চটি ১৮ ঘণ্টা পর উদ্ধার করা হয়। সোমবার দুপুরে লঞ্চটি উদ্ধারের পরে সেই লঞ্চের ভেতর থেকে ২২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সেইসঙ্গে দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা ২৭ জনে দাঁড়িয়েছে।

এর আগে এদিন সকাল থেকেই শীতলক্ষ্যার উভয় তীরে অপেক্ষমান হাজারো মানুষের ভিড় দেখা যায়। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে লঞ্চটি উদ্ধার করে তীরে নিয়ে আসা হয়। এরপর একে একে ভেতর থেকে বেরিয়ে আসতে থাকে লাশ। আর এ সময় লাশ আনতে গিয়ে ডুবুরির চোখে এক হৃদয়বিদারক চিত্র পরিলক্ষিত হয়।

আরও পড়ুন: ২৭ মরদেহ উদ্ধারের পর অভিযান সমাপ্ত

মা তার সন্তানকে তার বুকে পরম মমতায় আগলে রেখেছেন। লঞ্চের ভেতরে থাকা সবকিছু এলোমেলো হয়ে গেলেও মা তার সন্তানকে ছাড়েননি। শেষ পর্যন্ত ডুবুরিরাও মায়ের কোল থেকে সন্তানকে আর আলাদা করেননি। আগলে রাখা অবস্থায়তেই মা ও সন্তানকে উদ্ধার করেছেন।

ওই মায়ের নাম তাহমিনা ও সন্তান আব্দুল্লাহ। তারা মুন্সিগঞ্জের বাসিন্দা। তারা নারায়ণগঞ্জ থেকে লঞ্চযোগে মুন্সিগঞ্জের দিকে যাচ্ছিলেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত