ঢাকা, বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮ আপডেট : ৩৭ মিনিট আগে

প্রকাশ : ০৯ মে ২০২১, ১৭:৪৪

প্রিন্ট

হাওরে বাইক রাইডারের মরদেহ উদ্ধার, হত্যা মামলা

হাওরে বাইক রাইডারের মরদেহ উদ্ধার, হত্যা মামলা
ছবি: প্রতিনিধি

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলায় ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলচালক রেজাউল করিম রাজিবের (৩৬) মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। আজ রোববার দুপুর দেড়টায় রাজিবের বাবা বাচ্চু মিয়া বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখসহ আরো ১০-১২ জনকে অজ্ঞাত করে মোহনগঞ্জ থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

আসামিরা হলেন- উপজেলার হাটনাইয়া গ্রামের রিয়াদুল হক মোহন (৩৭), যতন মিয়া (৩৫), ভাটিয়া গ্রামের আবুুল কালাম আজাদ (৪৫), দিলাল মিয়া (৪১), তরিকুল ইসলাম (২৫), মনোবীর সরকার (২২), মল্লিকপুর গ্রামের সুরঞ্জণ গুণ (৩৮), কুলপতাক গ্রামের মনুজ চক্রবর্তী (২৬), ছয়াশি গ্রামের আশিক খাজা (৩৮), পার্শ্ববর্তী খালিয়াজুরী উপজেলার বানুয়ারী গ্রামের স্বস্তির মিয়া (৩৮) এবং হিরণ মিয়া (৩৫)। এছাড়াও আরো ১০-১২ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

এদের মধ্যে আবুুল কালাম আজাদ সুয়াইর ইউপির ৯নং ওয়ার্ড সদস্য ও দিলাল মিয়া স্থানীয় একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। সম্পর্কে তারা আপন ভাই ও তরিকুল ইসলাম তাদের ভাতিজা বলে জানান হত্যাকাণ্ডের শিকার রাজিবের বন্ধু শুভ।

রিয়াদুল হক মোহন, আবুুল কালাম আজাদ ও মনোবীর সরকার এ তিনজন ইতিমধ্যে পুলিশের হেফাজতে থাকায় এই মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে দুপুরে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এ বিষয়ে মোহনগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান বলেন, তিনজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের ধরতে অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মোহনগঞ্জের সুইয়ার ইউনিয়নের ভাটিয়া হাওরে এক মৎস্য খামার থেকে বাইকচালকের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। মৃতদেহ উদ্ধারের সময় তার হাত ও মুখ বাঁধা অবস্থায় ছিল। এর আগে বুধবার নিখোঁজ হন রাজিব।

ময়নাতদন্ত শেষে শনিবার বিকেলে নিজ বাড়ি পৌরশহরের দেওথান গ্রামে তার লাশ দাফন করা হয়।

আরও পড়ুন- নিখোঁজের দু’দিন পর হাওরে মিললো বাইকরাইডারের লাশ

বাংলাদেশ জার্নাল/আর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত