ঢাকা, সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮ আপডেট : ১৭ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১৫ জুন ২০২১, ২১:৫৮

প্রিন্ট

অটোরিকশায় গণধর্ষণ, দুইজনকে পুলিশে দিল জনতা

অটোরিকশায় গণধর্ষণ, দুইজনকে পুলিশে দিল জনতা
ছবি- প্রতিনিধি

সিলেট প্রতিনিধি

সিলেটের দক্ষিণ সুরমা এলাকার এক তরুণীকে জালালাবাদ থানা এলাকায় নিয়ে অটোরিকশার ভেতর গণধর্ষণ করেছে দুই যুবক। এ ঘটনায় দুই যুবককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা।

সোমবার দিবাগত রাত আনুমানিক ১০টার দিকে জালালাবাদ থানাধীন কান্দিগাঁও ইউনিয়নস্থ নীলগাঁও পুঁটিকাটা ব্রিজের পাশে নির্জন স্থানে অটোরিকশা দাঁড় করিয়ে তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়। পরে শহরে ফেরার সময় তরুণীর কান্না শুনে অটোরিকশা আটকিয়ে দুই যুবককে পুলিশে দেন স্থানীয়রা।

ওই দুই যুবক হলেন- জালালাবাদ থানা এলাকার ইসলামপুর মানসিনগর এলাকার কাপ্তান মিয়ার ছেলে তাজ উদ্দিন (২২) ও একই এলাকার রজন মিয়ার ছেলে এখলাছুর রহমান।

তবে এ সময় অটোরিকশার চালক আসামি ফুল মিয়া পালিয়ে যান বলে জানায় পুলিশ। তাৎক্ষণিক তরুণীকে উদ্ধার করে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করে পুলিশ।

এ ঘটনায় ওই তরুণী বাদী হয়ে জালালাবাদ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলায় তাদের দুইজনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জানিয়েছেন জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাজমুল হুদা খান।

ওসি জানান, আসামি তাজ উদ্দিনের সাথে ওই তরুণীর পরিচয়। এর সুবাদে সে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে তরুণীকে সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দক্ষিণ সুরমা এলাকা থেকে অটোরিকশা করে আম্বরখানা এলাকায় নিয়ে যায়। পরে আম্বরখানা থেকে অটোরিকশাতে উঠে এখলাছুর রহমান নামের তার এক বন্ধু।

পরে তরুণীকে অটোরিকশা করে শহরতলীর পুঁটিকাটা ব্রিজের পাশে নিয়ে গিয়ে অটোরিকশা দাঁড় করিয়ে দুইজন মিলে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর তরুণীকে আবার একই অটোরিকশা করে শহরের দিকে নিয়ে যাওয়ার সময় তার কান্না শুনে স্থানীয়রা অটোরিকশা থামিয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তরুণীকে উদ্ধার করে তাজ উদ্দিন ও এখলাসুর রহমানকে আটক করে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত