ঢাকা, রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮ আপডেট : ৫ মিনিট আগে

অকারণে বের হয়ে রাজধানীতে গ্রেপ্তার ৫৮৭

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৮:৫৪

অকারণে বের হয়ে রাজধানীতে গ্রেপ্তার ৫৮৭
ছবি সংগৃহীত
নিজস্ব প্রতিবেদক

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধের তৃতীয় দিন কারণে অকারণে রাস্তায় বের হচ্ছে মানুষ। অন্যদিকে রাজপথে সরব আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরাও। অকারণে বের হওয়ায় রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে ৫৮৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। এছাড়া ২৩৩ জনকে এক লাখ ৯৫০ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া ট্রাফিক বিভাগ ৫২১টি গাড়ির বিরুদ্ধে জরিমানা করেছে ১২ লাখ ৭২ হাজার টাকা।

রোববার ডিএমপির (মিডিয়া এন্ড পাবলিক রিলেশনস) অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) ইফতেখায়রুল ইসলাম বাংলাদেশ জার্নালকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, প্রথম ধাপের লকডাউন শিথিল হবার পর তৃতীয় দিনে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ডিএমপির ৮টি বিভাগের রমনা, লালবাগ, মতিঝিল, ওয়ারী, তেজগাঁও, মিরপুর, গুলশান ও উত্তরা এলাকা থেকে ৫৮৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে অকারণে ও নানা অজুহাতে ঘর থেকে বের হওয়ায় ও বিধিনিষেধে প্রতিষ্ঠান খোলা রাখায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ২৩৩ জনকে এক লাখ ৯৫০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এছাড়া ৫২১টি গাড়ির বিরুদ্ধে জরিমানা করা হয়েছে ১২ লাখ ৭২ হাজার টাকা।

রোববার সকালে রাজধানীর মাতুয়াইল, শনির আখড়া, মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডি, জিগাতলা, সিটি কলেজ মোড়, রাসেল স্কয়ার মোড় এবং গণভবন চেকপোস্ট ঘুরে দেখা যায়, চেকপোস্টগুলোতে পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন ঠিকই, তবে রাস্তায় চলছে শত শত গাড়ি।

ব্যক্তিগত গাড়িগুলোতে চিকিৎসক, নার্স, ব্যাংকের সাথে সম্পৃক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা চলাচল করছেন। এছাড়া বেশিরভাগ মোটরসাইকেলে চলছেন বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির কর্মীরা। এছাড়াও বহু মানুষ রাস্তায় বের হয়েছেন যাদের বেশিরভাগই বলছেন, হাসপাতালে রোগীকে খাবার দিতে যাবে।

এ বিষয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিরপুর বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাহাতাব উদ্দিন বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘বিধিনিষেধ না মানায় শাস্তি হিসেবে তাদের এ জরিমানা করা হয়েছে। অনেকেই নানা অজুহাতে বের হচ্ছে। আজও রাজধানীতে ফিরছে মানুষ। তবে কঠোর বিধিনিষেধ শিথিল করার পর পুনরায় বিধিনিষেধ মানাতে আমাদের কার্যক্রম চলমান চলছে।

এদিকে ঈদের আগে করোনার উচ্চ সংক্রমণের মধ্যেও চলমান কঠোর বিধিনিষেধ ২৩ জুলাই পর্যন্ত শিথিল করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। তবে ঈদের পর আবারও ১৪ দিনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ দেওয়া হয়।

এতে বলা হয় ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে ৫ আগস্ট রাত ১২টা পর্যন্ত ফের কঠোর বিধিনষেধ আরোপ করা হয়।

তবে এ সময়ে সর্বাবস্থায় জনসাধারণকে সতর্কাবস্থায় থাকা এবং মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে অনুসরণ করতে হবে।

এর আগে গতকাল শনিবার ৩৮৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে অকারণে ও নানা অজুহাতে ঘর থেকে বের হওয়ায় ও বিধিনিষেধে প্রতিষ্ঠান খোলা রাখায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১৩৭ জনকে এক লাখ ৯৫ হাজার ২৩০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এফজেড/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত