ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮ আশ্বিন ১৪২৮ আপডেট : ৩১ মিনিট আগে

স্বেচ্ছাসেবামূলক গ্রুপ ‘উই আর বাংলাদেশ’ ও এস এম আকবর

  জার্নাল ডেস্ক

প্রকাশ : ২৭ জুলাই ২০২১, ১৭:২৪

স্বেচ্ছাসেবামূলক গ্রুপ ‘উই আর বাংলাদেশ’ ও এস এম আকবর
‘উই আর বাংলাদেশ (ওয়াব)’ গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা এস এম আকবর
জার্নাল ডেস্ক

এস এম আকবর, যিনি বাংলাদেশ পুলিশে কর্মরত আছেন। ১৯৯২ সালে বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ থানায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি। ৩ বছর আগে তার হাত ধরেই ‘আলো আসবেই’ স্লোগান নিয়ে যাত্রা শুরু করে ফেসবুক ভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবামূলক গ্রুপ ‘উই আর বাংলাদেশ (ওয়াব)’ । যেকোন সমস্যায় পরামর্শ, সহায়তা মেলে ‘উই আর বাংলাদেশ’ (ওয়াব) গ্রুপের ফেইসবুক পেইজে। সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা থেকে শুরু করে একেবারে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষও গ্রুপটির সঙ্গে যুক্ত।

গ্রুপটির নাম ‘উই আর বাংলাদেশ’ কেন? এমন প্রশ্নে আকবরের উত্তর, ‘আমরা সবাই মিলেই বাংলাদেশ। দেশ এবং দেশের মানুষকে এগিয়ে নিতে সবার অংশগ্রহণ প্রয়োজন। গ্রুপে যাতে যে কেউ যেকোনো বিষয়ে বস্তুনিষ্ঠ আলোচনার পাশাপাশি বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা বলতে পারেন, সে কারণেই গ্রুপটির এমন নামকরণ।

সারা দেশেই ছড়িয়ে আছেন আমাদের মেম্বাররা। এ জন্য নোয়াখালীর কেউ রংপুর অথবা ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে কোনো সহায়তা চেয়ে পোস্ট করলেও সেখান থেকেও সাড়া পাই আমরা। এছাড়াও গ্রুপে সরকারের সব দপ্তরের কর্মকর্তা থেকে শুরু করে চিকিৎসক, প্রকৌশলী, পুলিশ, ম্যাজিস্ট্রেট, আইনজীবী, সাইবার অভিজ্ঞসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষই আছেন। আমরা সবার মধ্যে একটা সমন্বয় আনতে চাই। গ্রুপে কেউ কোনো পরামর্শ চাইলে সে বিষয়ে অভিজ্ঞ ব্যক্তিরাই সমাধান দিতে চেষ্টা করেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘সদস্যদের নিয়ে বিভাগীয় আলাদা আলাদা দল আছে। এখন আমরা জেলাভিত্তিক দল গঠন করতে চাই। যাতে গ্রুপটির সদস্যরা যেকোনো সমস্যায় একে অপরের পাশে দাঁড়াতে পারেন।’

‘উই আর বাংলাদেশ’ এর ভিশন জানাতে গিয়ে এস এম আকবর বলেন, ‘পুলিশের ফেসবুক পেইজ চালানোর সময় উপলব্ধি করতে পারি যে মানুষের উপকারে ফেসবুক একটি দারুণ প্ল্যাটফর্ম। সমাজের বিভিন্ন স্তরের, বিভিন্ন মতের ও পেশার মানুষকে এক কাতারে দাঁড় করাতে পারলেই এটা সম্ভব। সেই পরিকল্পনা থেকেই শুরু করেছিলাম গ্রুপটির কার্যক্রম। আমরা চাই বাংলাদেশের সব ফেসবুক ব্যবহারকারী একদিন আমাদের গ্রুপটিতে যুক্ত হবেন। সবাই মিলে আলোকিত বাংলাদেশ গড়ে তুলব। যার জন্য গ্রুপটির স্লোগান রেখেছি ‘আলো আসবেই’।

বাংলাদেশ জার্নাল/আইএন

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত