ঢাকা, বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ আপডেট : ৫ মিনিট আগে

পরকীয়াকাণ্ডের পর সেই খাদ্য পরিদর্শক এবার নারী নির্যাতন নিয়ে আলোচনায়

  গোফরান পলাশ, পটুয়াখালী প্রতিনিধি

প্রকাশ : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৪০

সেই খাদ্য পরিদর্শক এবার নারী নির্যাতন নিয়ে আলোচনায়
মাসুমা আক্তার কলি
গোফরান পলাশ, পটুয়াখালী প্রতিনিধি

পরকীয়াকাণ্ডের পর এবার নারী নির্যাতনে আলোচিত পটুয়াখালীর কলাপাড়া খাদ্য অধিদপ্তরের সদ্য বদলিকৃত নারী খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানা ফের শহরজুড়ে টব অব দ্য টাউন। শনিবার রাতে দুই সন্তানের জননী এক নারীকে নির্যাতন করে ফের আলোচনায় আসেন তিনি। ঘটনার পর স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে ভিকটিম নারীর পরিবার ও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নির্যাতনের শিকার মাসুমা আক্তার কলিকে উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন।

ভুক্তভোগী মাসুমা আক্তার কলি জানান, গত একমাস ধরে দুই সন্তানসহ তার ভরণপোষণ না দেয়ায় শনিবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে স্বামীকে খুঁজতে এসে হামলা-নির্যাতনের শিকার হন তিনি। এ সময় আরিফা সুলতানা ঘরের মধ্যে জোরপূর্বক টেনে নিয়ে দরজা বন্ধ করে তার ওপর নির্যাতন চালান। থানা পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন। হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে নির্যাতনের এ ঘটনায় তিনি আইনের আশ্রয় নেয়ার কথা বলেন।

কলাপাড়া থানার ওসি মো: জসিম বলেন, বিষয়টি পারিবারিক এবং দুই সতিনের ঝগড়াঝাটি সংক্রান্ত। আমরা জেনে তাৎক্ষণিক আইনি সহায়তা দেয়ার চেষ্টা করেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে যতটুকু অপরাধ সংঘটিত হয়েছে, সে বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এর আগে ওএমএস ডিলার মামুন হাওলাদারের সাথে নারী খাদ্য পরিদর্শকের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগে গৃহবধূ মাসুমা আক্তার কলি’র অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করে খাদ্য অধিদপ্তরের গঠিত তদন্ত কমিটি। পরে খাদ্য অধিদপ্তরের সংস্থাপন শাখা, প্রশাসন বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক মো. আশরাফুল আলম স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে প্রশাসনিক কারণ দেখিয়ে আরিফা সুলতানাকে বদলি করা হয়।

যদিও অভিযোগের শুরু থেকে ওএমএস ডিলার মামুনকে স্বামী বলে পরিচয় দিয়ে আসছিলেন আরিফা। বর্তমানে শহরে আলাদা ফ্লাট বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করছেন আরিফা।

এদিকে আলোচিত আরিফা সুলতানা রোববার কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তার ফ্লাট থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ এনে মাসুমা বেগম কলিসহ তার পরিবারের ৫ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন। আদালত মামলার অভিযোগের বিষয়ে কলাপাড়া সমবায় কর্মকর্তাকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত