ঢাকা, বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ আপডেট : ৩৬ মিনিট আগে

আধিপত্য ও ফেসবুকে উস্কানীমূলক ষ্ট্যাটাস

গোপালগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ আহত ৩০, ঘরবাড়ি ভাংচুর

  গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশ : ২৬ নভেম্বর ২০২১, ০০:২৪  
আপডেট :
 ২৬ নভেম্বর ২০২১, ০০:২৮

গোপালগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ আহত ৩০, ঘরবাড়ি ভাংচুর
ছবি: প্রতিনিধি
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

আধিপত্য ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে উস্কানীমূলক ষ্ট্যাটাস দেয়াকে কেন্দ্র করে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ ৩০জন আহত হয়েছে। এ সময় ৩৫টি ঘরবাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার কাশিয়ানী উপজেলার কলসি ফুকরা গ্রামে বিকাল থেকে রাত পযর্ন্ত প্রায় চার ঘন্টা ধরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) নিহাদ আদনান তাইয়ান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সংঘর্ষ থামাতে বেশ কয়েক টিয়ার সেল ও শট গানের গুলি বর্ষন করে পুলিশ। আহতদের কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) নিহাদ আদনান তাইয়ান জানান, অধিপত্য বিস্তার নিয়ে কলসি ফুকরা গ্রামের দেলোয়ার হোসেন দুলু সরদার ও এস এম আবু বক্কার সরদারের মধ্যে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। বৃহস্পতিবার ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের উস্কানীমূলক স্ট্যাটাস দিলে দুই জনের সমর্থকদের মধ্যে কথা কাটাকাটির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে বিকাল থেকে দু’পক্ষের লোকজন লাঠিসোঁটা, ঢাল-সড়কি, রামদাসহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। বিকাল থেকে রাত পযর্ন্ত প্রায় চার ঘন্টা ধরে চলা এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের নারীসহ অন্তত ৩০জন আহত হন। এ সময় উভয়পক্ষের প্রায় ৩৫টি ঘরবাড়ি ভাংচুর করা হয়।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা (ইউএনও) রথীন্দ্র নাথ রায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মুকসুদপুর সার্কেল) মো: শাহিনুর চৌধুরী, ওসি মোহাম্মাদ মাসুদ রায়হান ও ওসি (তদন্ত) মুহাম্মদ ফিরোজ আলমসহ বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে ছুটে যান। এ সময় পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ার সেল ও ফাঁকা গুলি করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

তিনি আরো জানান, এলাকার পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে এখন পযর্ন্ত কোন পক্ষই থানায় মামলা দায়ের করেনি।

বাংলাদেশ জার্নাল/এএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত