ঢাকা, শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে

টাঙ্গাইল-৭ আসন উপ-নির্বাচনে জামানত হারালেন ৩ প্রার্থী

  টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

প্রকাশ : ১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:৪৪

টাঙ্গাইল-৭ আসন উপ-নির্বাচনে জামানত হারালেন ৩ প্রার্থী
ছবি: প্রতিনিধি
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনের উপ-নির্বাচনে ৩ প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এএইচএম কামরুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, কাস্টিং ভোটের সাড়ে ১২% এর কম পেলে প্রার্থী জামানত হারান। সে হিসেবে বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির গোলাম নওজব চৌধুরী ১ হাজার ৪৫ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী নুরুল ইসলাম নুরু ২ হাজার ৪৩৬ ও বাংলাদেশ কংগ্রেস পার্টির রুপা রায় চৌধুরী ৪৩৮ ভোট পাওয়ায় তারা জামানত হারিয়েছেন।

এএইচএম কামরুল হাসান জানান, উপ-নির্বাচনে ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। উপজেলায় ৩ লাখ ৪০ হাজার ৩৭৯ জন ভোটারের মধ্যে ১,২৪,৭৫১ জন ভোটার ভোট দিয়েছেন। শতকরা ৩৬ দশমিক ৬৩ ভাগ ভোট কাস্ট হয়েছে।

জামানত হারানো ৩ জনসহ মোট ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন।এর মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী খান আহমেদ শুভ ১ লাখ ৪ হাজার ৫৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি জাতীয় পার্টির প্রার্থী জহিরুল ইসলাম জহির পেয়েছেন ১৬ হাজার ৭৭৩ ভোট।

এদিকে, এজেন্ট বের করে দেয়ার অভিযোগ এনে ভোট গ্রহণের শেষ সময়ে গোলাম নওজব চৌধুরী নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন। জাতীয় পার্টির প্রার্থীও কারচুপির অভিযোগ করেছেন।

উপ-নির্বাচনে বিজয়ী খান আহমেদ শুভ বলেন, ‘আমি জননেত্রী শেখ হাসিনা, মির্জাপুরবাসী এবং দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি চিরকৃতজ্ঞ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে সবাইকে নিয়ে স্বপ্নের মির্জাপুর গড়ার লক্ষ্যে কাজ করবো।’

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৬ নভেম্বর এ আসনের টানা ৪ বারের সংসদ সদস্য একাব্বর হোসেন চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকায় মারা যান। গত ৩০ নভেম্বর আসনটি শূন্য ঘোষণা করে উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। ১৬ জানুয়ারি প্রথমবারের মতো ভোট গ্রহণ হয়।

বাংলাদেশ জর্নাল/পিএল

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত