কুষ্টিয়ায় নদী ভাঙন রক্ষার আহ্বান জানিয়ে এমপি ইনু’র ফেসবুকে পোস্ট

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০৫ | অনলাইন সংস্করণ

  কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

ছবি- প্রতিনিধি

পানি কমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পদ্মা নদীর ভাঙন তীব্র আকার ধারণ করেছে। কুষ্টিয়ার মিরপুর-ভেড়ামারার উপজেলার কয়েকটি পয়েন্টে নদীতে ভাঙন দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে মিরপুর উপজেলার তালবাড়ীয়া ইউনিয়ন, বারুইপাড়া, বহলবাড়ীয়া এবং ভেড়ামারা উপজেলার বাহিরচর ইউনিয়নের মুন্সিপাড়া অংশে পদ্মা নদীর পাড়ে অস্বাভাবিক ও ভয়াবহ ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে।

ইতোমধ্যেই নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে কয়েকশ একর ফসলি জমি। এতে হুমকির মুখে পড়েছে কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী মহাসড়কসহ হাজারও বসতবাড়ি, সরকারি-বেসরকারি নানা স্থাপনা। এছাড়াও শত শত বিঘা ফসলি জমিও চলে যেতে পারে নদীগর্ভে। প্রতিদিনই প্রায় ৬০ থেকে ৭০মিটার জায়গা নদীগর্ভে বিলীন হচ্ছে।

এ অবস্থায় মহাসড়ক রক্ষায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জরুরী ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানিয়েছেন কুষ্টিয়া-২ (মিরপুর-ভেড়ামারা) আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ইনু তার নিজ ফেসবুক ওয়ালে বিষয়টি নিয়ে পোস্ট করেন। ফেসবুক পোস্টে তিনি জানান, তার নির্বাচনী এলাকা মিরপুর উপজেলার তালবাড়ীয়া ইউনিয়ন,বারুইপাড়া ইউনিয়ন, বহলবাড়ীয়া ইউনিয়ন এবং ভেড়ামারা উপজেলার বাহিরচর ইউনিয়নের মুন্সিপাড়া অংশে পদ্মা নদীর পাড়ে অস্বাভাবিক ও ভয়াবহ ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে। ইতিমধ্যেই এসব ইউনিয়নে পদ্মার ভাঙ্গনে অনেক মানুষের ঘরবাড়ি ও ফসলি জমি বিলীনের মুখে চলে গেছে।

এই ভাঙ্গনে খুলনা থেকে পাকশী-ভেড়ামারা পয়েন্টে পদ্মা নদীর উপর লালন সেতু হয়ে পঞ্চগড় পযন্ত মহাসড়ক ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। মিরপুর উপজেলার তালবাড়ীয়া ইউনিয়নের তালবাড়িয়া বালুঘাট, বারুইপাড়া ইউনিয়নের মির্জাপুর বালু মহল এবং বহলবাড়ীয়া ইউনিয়নের সাহেবনগর পয়েন্টে দ্রুত গতিতে পাড় ভাঙতে ভাঙতে পদ্মা নদী এই মহাসড়কের মাত্র ২৫০ থেকে ৩০০ মিটারের কাছাকাছি চলে এসেছে।

ইনুর পোস্টে আরও বলা হয়েছে, খুলনা-পঞ্চগড় মহাসড়ক মংলা বন্দরসহ সমগ্র খুলনা বিভাগের সাথে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের যোগাযোগ,পণ্য পরিবহন,আমদানি-রপ্তানিসহ জাতীয় অর্থনীতির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ জরুরী কর্তব্য বিবেচনা করে খুলনা-পঞ্চগড় মহাসড়ক রক্ষায় দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক পোস্ট করায় অনেকেই এমপি হাসানুল হক ইনুকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসএস