ঢাকা, বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯ আপডেট : ১১ মিনিট আগে

আওয়ামী লীগ দেশকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিয়েছে: ফখরুল

  দিনাজপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ : ১৪ মে ২০২২, ১৭:০৬

আওয়ামী লীগ দেশকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিয়েছে: ফখরুল
ফাইল ফটো
দিনাজপুর প্রতিনিধি

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখারুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগ লুট করেছে, হত্যা করেছে, গুম করেছে, দুর্নীতি করেছে, তার প্রমাণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আমাদের প্রতিষ্ঠান র‍্যাবের কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, বেগম খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় জেল দেয়া হয়েছে। তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আওয়ামী লীগ বিচার বিভাগকে ধ্বংস করেছে, প্রশাসনকে ধ্বংস করেছে ও সংবাদমাধ্যমকে দলীয়করণ করেছে। তারা দেশটাকে তাদের জমিদারি পৈত্রিক সম্পত্তি মনে করছে। তারা দেশকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিয়েছে।

শনিবার দিনাজপুর ইনস্টিটিউট মাঠে জেলা বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিলে প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখারুল বলেন, যারা সবসময় স্বাধীনতার কথা বলে, গণতন্ত্রের কথা বলে মুখে, তারা কাজ করে উল্টো। ১৯৭৫ সালের আওয়ামী লীগ একবার আমাদের গণতন্ত্রকে গলাটিপে হত্যা করেছিল, আবার তারা কয়েক বছর ধরে গণতন্ত্রকে হত্যা করছে। আমাদের অধিকারগুলোকে হনন করে আমাদের দেশ থেকে একটি একনায়কতন্ত্র রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, প্রতিনিয়ত হচ্ছে হত্যা, রাহাজানি, সন্ত্রাস, লুটপাট, ধর্ষণ। বাংলাদেশকে এরা চুরি করতে করতে ডাকাতি করতে করতে এমন এক পর্যায়ে নিয়ে গেছে, তাদের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাহেব ফরিদপুরের আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে নিজেই বলেছেন, যে সমস্ত আওয়ামী লীগের নেতারা হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করে পাচার করেছেন তাদের আওয়ামী লীগে জায়গা হবে না। তাহলেই ওবায়দুল কাদের সাহেব স্বীকার করে নিয়েছেন আপনারা হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করেছেন বিদেশে পাচার করেছেন। এটা একটি ঐতিহাসিক সত্য।

তিনি আরও বলেন, ১৯৯০ সালে স্বৈরশাসক হটিয়ে আমরা গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছিলাম, আবার ২০২২/২৩ সালে আমাদের গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে হবে তারেক রহমানের নেতৃত্বে। আমাদের নতুন বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতে হবে যে বাংলাদেশে নির্যাতন-নিপীড়ন থাকবে না, যে বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ থাকবে, থাকবে গণতন্ত্রের চর্চা। তাই আজকের তরুণদেরকে জেগে ওঠতে হবে এবং বাসযোগ্য স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে এগিয়ে আসতে হবে।

ফখরুল হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, এই সরকারের পদত্যাগ করিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে অনতিবিলম্বে দুর্বার আন্দোলন করতে হবে। নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনার পরিচালনায় অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন এবং সবাই ভোট দিতে পারবে এমন একটি গণতান্ত্রিক সরকার গঠন করতে হবে। এ জন্য প্রয়োজন হচ্ছে কঠোর আন্দোলন। আমাদেও নেতা বলেছেন, দেশ যাবে কোন পথে ফায়সালা হবে রাজপথে। আমাদের যে বাংলাদেশে ছিল গণতান্ত্রিক, সেই গণতান্ত্রিক বাংলাদেশকে আমরা ফিরিয়ে দেবো।

দিনাজপুর জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রেজিনা ইসলামের সভাপতিত্বে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল মাহমুদ টুকু, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হাসান, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক (রংপুর বিভাগ) আহসানুল হাবিব দুলু প্রমুখ।

বেলা ২টা থেকে বিএনপির ২০ ইউনিটের ১ হাজার ৯১৯ জন কাউন্সিলর গোপন ব্যালটের মাধ্যমে জেলা বিএনপির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ ৭টি পদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। চলে বিকাল সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত। বেলা সাড়ে পাঁচটার পর ফলাফল ঘোষণা করবেন নির্বাচন কমিশনার।

উল্লেখ্য, ১২ বছর পর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির দিনাজপুর জেলা শাখার দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল শুরু হলো।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত