ঢাকা, সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯ আপডেট : ১৮ মিনিট আগে

থিয়েটার কুবি; নাটক-অভিনয়ের এক দশক

  নাঈমুর রহমান রিজভী, কুবি প্রতিনিধি

প্রকাশ : ১৯ মে ২০২২, ১৩:৪৫  
আপডেট :
 ১৯ মে ২০২২, ১৩:৫২

থিয়েটার কুবি; নাটক-অভিনয়ের এক দশক
ছবি: বাংলাদেশ জার্নাল
নাঈমুর রহমান রিজভী, কুবি প্রতিনিধি

গল্পের শুরুটা 'বউ' নাটক দিয়ে। ২০১২ সালের ১৪ এপ্রিল কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে একদল স্বপ্নবাজ তরুণের প্রযোজনায় মঞ্চস্থ হয় নাটকটি। আর সেদিনই আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে থিয়েটার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। একে একে সংগঠনটির বয়স ১০ বছর পূর্ণ হলো। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই কখনো পথনাটক, কখনো মঞ্চনাটক প্রদর্শন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ভিন্নধর্মী বার্তা দিয়ে আসছে সংগঠনটির সদস্যরা।

'স্বদেশী স্পন্দনে, তারুণ্যের জয়গানে' এই স্লোগানকে সামনে রেখে ২০১১ সালে কিছু স্বপ্নবাজ তরুণ-তরুণী এবং নবীন অভিজ্ঞ শিক্ষকের সম্মিলিত প্রচেষ্টার ফল থিয়েটার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। যদিও ২০১২ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু হয়।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুমোদন পাওয়া প্রথম সাংস্কৃতিক সংগঠন হিসেবে যাত্রা শুরু করে সংগঠনটি ইতোমধ্যে ৯টি মঞ্চনাটক, অসংখ্য নাটিকা ও পথনাটক উপহার দিয়েছে। যার মধ্যে অন্যতম হলো বউ, দালাল, কবর, স্ট্যাচু অব ডেমোক্রেসি, চৌরাস্তা, বেহুলা ভাসান, ইনডেমনিটি ও ১৯৭১। যা প্রতিবারই দর্শকদের জনপ্রিয়তা পেয়েছে। সম্প্রতি 'পাগল পাগল বদ্ধ পাগল' পথনাটক ক্যাম্পাসজুড়ে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ্ডি পেরিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখছে সংগঠনটির নাট্যকর্মীরা। গেল বছরে বিটিভির নৃত্যশিল্পী নির্বাচিত হয়েছেন থিয়েটার কর্মী অদিতি রায় চৌধুরী। ২০১৯ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত হওয়া ১২তম সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ইউথ ফেস্টিভ্যালে অংশ নেন থিয়েটারের বর্তমান সভাপতি অর্ক গোস্বামী। এছাড়াও সময়ে সময়ে নাট্য কর্মশালা ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে ক্যাম্পাসকে মাতিয়ে রাখেন তারা।

গত ১৪ এপ্রিল সংগঠনটির ১০ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আনন্দ শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, ইফতার মাহফিল ও কেক কেটে দিবসটি পালন করেন সংগঠনটির নাট্যকর্মীরা।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও থিয়েটারের উপদেষ্টা এন. এম. রবিউল আউয়াল চৌধুরী বলেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় থিয়েটার ১০ বছরে যতদূরে যাওয়ার কথা সেখানে পৌঁছায়নি। এর মূল কারণ হলো শিক্ষার্থীরা এই ধরনের সংগঠনে থাকতে চায় না। যেখানে বেশি সুবিধা পাওয়া যায় সেখানেই তারা যুক্ত হয়। কিন্তু থিয়েটারের মতো সংগঠনে যারা চার পাঁচ বছর কাটিয়ে দিতে পারে তারা অবশ্যই ব্যক্তি জীবনে, ক্যারিয়ারে সফল হয়।

থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক ইশতিয়াক আহমেদ বলেন, থিয়েটার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অন্যতম সাংস্কৃতিক সংগঠন যা বিভিন্ন সময়ে নাটক ও অভিনয় দিয়ে শিক্ষার্থীদের আনন্দ দিয়ে থাকে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে আমরা বেশ কয়েকটি মঞ্চনাটক, পথনাটক এবং নাটিকা করেছি এবং অনেক সাড়াও পেয়েছি। সকলের সহযোগিতা পেলে থিয়েটার আরও বহুদূর এগিয়ে যাবে আশা করি।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওএফ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত