ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯ আপডেট : ২ মিনিট আগে

শুক্রবার থেকে চট্টগ্রামের ৬ উপজেলার ভোটার হালনাগাদ শুরু

  চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

প্রকাশ : ১৯ মে ২০২২, ২১:১৪

শুক্রবার থেকে চট্টগ্রামের ৬ উপজেলার ভোটার হালনাগাদ শুরু
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের ছয় উপজেলায় শুক্রবার (২০ মে) থেকে ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রম শুরু হবে। প্রথম ধাপে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড, সন্দ্বীপ, কর্ণফুলী, আনোয়ারা, পটিয়া ও লোহাগাড়া উপজেলায় এ কার্যক্রম চলবে। এছাড়া রোহিঙ্গা ঠেকাতে ‘বিশেষ নজর’ এর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের তথ্যানুযায়ী, সীতাকুণ্ড উপজেলায় ২০ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহের কাজ চলবে। এ উপজেলায় নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে ১০ জুন থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত। দক্ষিণ চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলায় একই সময় পর্যন্ত বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হবে। সংগৃহীত তথ্যের নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে ১০ জুন থেকে ২৯ জুলাই। কর্ণফুলীর পার্শ্ববর্তী উপজেলা পটিয়ায় ২০ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহ হবে। নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে ১০ জুন থেকে ৩ জুলাই পর্যন্ত। লোহাগাড়ায় অন্যান্য উপজেলার মতো ২০ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহ করা হবে। নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে ১০ জুন থেকে ৬ জুলাই পর্যন্ত। আনোয়ারায় ২০ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহ করে ১০ জুন থেকে ৮ জুলাই পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহ চলবে।

পটিয়া উপজেলা রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা হওয়ায় এখানে বিশেষ নজরদারির ব্যবস্থা করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আরাফাত আল হোসাইনী জানান, কাল শুক্রবার থেকে পটিয়া উপজেলার ১৭ ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় নতুন ভোটার তালিকা কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

আরাফাত হোসাইনী জানান, পটিয়া রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা হওয়ায় এখানে বিশেষ কমিটির অনুমোদন নিয়ে ভোটার ফরম আপলোড করা হবে। বিশেষ এলাকায় (রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা) জন্য কিছু অতিরিক্ত দলিলাদি সংযুক্ত করতে হবে।

ছবিযুক্ত নাগরিক সনদ, ছবিযুক্ত প্রত্যয়নপত্র, অনলাইন জন্মসনদ, শিক্ষা সনদ, পিতা, মাতার আইডি কার্ড, স্বামী অথবা স্ত্রীর আইডি কার্ডসহ আরও কিছু দলিলাদি (ডকুমেন্ট) প্রয়োজন হবে বলে জানান তিনি।

ভোটার নিবন্ধন কার্যক্রম এবার বাড়ি বাড়ি গিয়ে চলবে। এ কার্যক্রমে ২০০৭ সালের ১ জানুয়ারি বা তার আগে জন্মগ্রহণকারীদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে। অর্থাৎ ১৬ বছর বয়সীদের তথ্যও নেওয়া হবে। যারা পরে বয়স ১৮ বছর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভোটার তালিকায় যুক্ত হবেন। তারা ভোটার তালিকায় যুক্ত হবেন ২০২৪ ও ২০২৫ সালে। বাড়ি বাড়ি গিয়ে ইসি নিয়োজিত কর্মীরা তথ্য নেওয়ার পর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে নির্দিষ্ট কেন্দ্রে গিয়ে আঙুলের ছাপ, চোখের আইরিশ দিয়ে এবং ছবি তুলে নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত