ঢাকা, রোববার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে

২৪ কোটি টাকা দিয়ে আইনজীবী ও শ্রমিক নেতাদের হাত করলেন ইউনূস!

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ০২ জুলাই ২০২২, ১৬:১৯  
আপডেট :
 ০২ জুলাই ২০২২, ১৭:৫৯

২৪ কোটি টাকা দিয়ে আইনজীবী ও শ্রমিক নেতাদের হাত করলেন ইউনূস!
নিজস্ব প্রতিবেদক

শ্রমিকদের মামলা প্রত্যাহারে রাজি করাতে দুই আইনজীবী ও তিন শ্রমিক ইউনিয়ন নেতাকে ২৪ কোটি টাকা দিয়েছে ডঃ মুহাম্মদ ইউনূসের মালিকানাধীন ‘গ্রামীণ টেলিকম’। গত ২৫ মে বিচারপতি খুরশীদ আলমের আদালতে গ্রামীণ টেলিকমের বিরুদ্ধে দায়ের করা কোম্পানী অবসায়ন মামলাটি (মামলা নং ২৭১/ ২০২১) প্রত্যাহারের আবেদন করে শ্রমিক ইউনিয়নের আইনজীবী মো. ইউসুফ আলী এবং গ্রামীণ টেলিকমের আইনজীবী এডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান।

আদালতে জানানো হয় গ্রামীণ টেলিকম প্রতিষ্ঠানটির সর্বমোট ১৭৬ জন কর্মচারীকে বকেয়া লভ্যাংশ হিসেবে ৪৩৭ কোটি টাকা প্রদান করবে এবং বিনিময়ে শ্রমিকরা ডঃ ইউনূসের বিরুদ্ধে সকল মামলা প্রত্যাহার করে নিবে। উক্ত সমুদয় অর্থ শ্রমিক কর্মচারীদের প্রাপ্য হলে সেটেলমেন্ট একাউন্টটির তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায় উক্ত একাউন্ট হতে তিনটি চেকের মাধ্যমে ২৬ কোটি ২২ লক্ষ টাকা গ্রামীণ টেলিকম শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের একাউন্টে প্রদান করা হয়েছে। পরবর্তীতে সেই একাউন্ট হতে ১৫ কোটি টাকা দেয়া হয় দুই আইনজীবী মোঃ ইউসুফ আলী ও জাফরুল হাসান চৌধুরী এবং তিন কোটি টাকা করে দেয়া তিন শ্রমিক নেতা মোঃ কামরুজামান, ফিরোজ মাহমুদ হাসান ও মাইনুল ইসলামকে।

অবশ্য আদালত ও সরকারের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের প্রভাবিত করে বিবাদমান মামলাসমূহের রায় নিজেদের পক্ষে আনার জন্য ২০২১ সালেও প্রায় ১৪ কোটি টাকা দিয়ে ‘ঢাকা লজিস্টিকস সার্ভিসেস এন্ড সল্যুশন’ নামক লবিস্ট ফার্ম নিয়োগ দিয়েছিলো গ্রামীণ টেলিকম। ১৪ জুন, ২০২১ সালে অনুষ্ঠিত গ্রামীণ টেলিকমের ১০৪ তম বোর্ড সভায় ডঃ মুহাম্মদ ইউনুসকে লবিষ্ট নিয়োগের ক্ষমতা প্রদান করা হয়, যার প্রেক্ষিতে কার্যাদেশ এবং প্রাথমিক বিল পায় প্রতিষ্ঠানটি। লবিষ্ট ফার্মটির প্রস্তাবনায় মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সচিবসহ সংশ্লিষ্ট উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে গ্রামীণ টেলিকমের মামলা সমূহের রায় ডঃ ইউনূসের নিজেদের পক্ষে আনার জন্য পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করা হয়। এজন্য খরচ দেখানো হয় ১৩ কোটি ৮০ লক্ষ টাকা। তখন সফল হতে না পারলেও এবার আইনজীবী ও শ্রমিক নেতাদের ২৪ কোটি টাকা ঘুষ প্রদান করে শ্রমিকদের দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করে নিতে সক্ষম হয় গ্রামীণ টেলিকম।

বিষয়টি প্রকাশিত হওয়ার পর গত ৩০ জুন বিচারপতি খুরশীদ আলম পুনরায় মামলাটি রিকল করেন এবং দুই পক্ষের আইনজীবীকে ২রা আগস্টের মধ্যে উক্ত লভ্যাংশ প্রদান সংক্রান্ত সকল ধরনের দালিলিক প্রমাণাদির এফিডেভিট কপি আদালতে জমা প্রদানের নির্দেশনা দিয়েছেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত