চাঁদপুরে প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে সড়কের উপর পশুর হাট

প্রকাশ : ০৭ জুলাই ২০২২, ০৪:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

  চাঁদপুর প্রতিনিধি

প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার মুন্সিরহাট বাজার এলাকায় মতলব-বাবুরহাট-পেন্নাই আঞ্চলিক সড়কের উপর দীর্ঘ এক কিলোমিটার জায়গাজুড়ে কোরবানির পশুর হাট বসানো হয়েছে। 

বুধবার (৬ জুলাই) সকাল থেকে ওই হাটের কার্যক্রম শুরু করা হয়। এতে সড়কটিতে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত দফায় দফায় দেড় কিলোমিটার দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এ হাটের কারণে ঈদে ঘরমুখো যাত্রী এবং অন্যান্য যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

গতকাল বুধবার বিকেল চারটা থেকে পাঁচটা পর্যন্ত ওই এলাকায় অবস্থান করে দেখা যায়, সড়কটির অর্ধেক প্রস্থে সারি সারি করে রাখা হয়েছে কোরবানির গরু ও ছাগল। সেখানে পশুর ক্রেতা-বিক্রেতাদের ভিড়ে তিল ধারণের ঠাঁই নেই। যানবাহন চলাচলেরও সুযোগ নেই তেমন। এতে করে দিনভর দফায় দফায় যানজটের সৃষ্টি হয়। মাঝে মাঝে থানা ও ট্রাফিক পুলিশ ওই যানজট দূর করার চেষ্টা চালায়। যানজটের কবলে পড়ে তীব্র গরমে ওই পথের যাত্রীরা সীমাহীন দুর্ভোগ পোহায়। বাজারটিতে ঈদের কেনাকাটা করতে আসা লোকদেরও বিড়ম্বনা পড়তে হয়। ব্যাহত হয় ঈদের বেচাকেনাও। 

উপজেলার নারায়ণপুরের আলী আক্কাস বলেন, চাঁদপুর থেকে একটি অটোরিকশায় বাড়ি যেতে বিকেলে মুন্সিরহাট বাজার পাড় হতে দীর্ঘ যানজটের কবলে পরি। তীব্র গরমে সেখানে প্রায় দেড় ঘণ্টা অটোরিকশায় বসে থাকতে হয়। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে যানজট কিছুটা দূর হয়। সড়কের উপর এভাবে পশুর হাট বসানো নিয়মবহির্ভূত। 

এ ঘটনায় পশুর হাটটির ইজারাদার জহিরুল ইসলাম হাজরা বলেন, পৌরসভা থেকে প্রায় চার লাখ টাকায় ইজারা নিয়ে সেখানে বৈধভাবেই পশুর হাট বসিয়েছি। অতীতেও এভাবেই সেখানে পশুর হাট বসেছে। 

মতলব পৌরসভার মেয়র আওলাদ হোসেন বলেন, গত ১০০ বছর ধরে ঐতিহ্যগতভাবেই ওই বাজারে সড়কের উপর কোরবানির পশুর হাট বসছে। বার্ষিক ইজারা নিয়েই ওই হাট বসিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ইজারাদার। 

মতলব দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া বলেন, যানজট দূর করতে থানা-পুলিশের তিনটি দল এবং ট্রাফিক পুলিশের একটি দল সার্বক্ষণিক সেখানে কাজ করছে। বুধবার সন্ধ্যায় সহকারী পুলিশ সুপারের (মতলব সার্কেল) কার্যালয়ে হাটটির ইজারাদার ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের ডাকা হয়েছে। 

বাংলাদেশ জার্নাল/কেএ