কুমিল্লার মহাসড়কে স্বস্তির ঈদযাত্রা

প্রকাশ : ০৭ জুলাই ২০২২, ১৮:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

  কুমিল্লা প্রতিনিধি

ছবি: প্রতিনিধি

ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে সড়ক-মহাসড়কগুলোতে বাড়ছে যানবাহনের চাপ। ব্যতিক্রম নয় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশ। মহাসড়কের এই অংশে গাড়ির চাপ থাকলেও, এখনো কোথাও যানজটের খবর পাওয়া যায়নি। বিড়ম্বনাহীনভাবে স্বস্তিতে বাড়ি ফিরছেন মানুষ।

গত ঈদুল ফিতরের সময় ঘরমুখী মানুষের চাপ ছিল বেশি। সড়কের সংস্কার, হাইওয়ে পুলিশের লোকবল সংকট ছিলো। এরপরও কোন বড় যানজটের খবর পাওয়া যায়নি। তাই যাত্রীসাধারণের প্রত্যাশা, আগের ঈদের মতো এবারও ঈদযাত্রা হবে স্বস্তির।

চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী যাত্রী আরফানুল বলেন, পথে ট্রাফিক পুলিশ ও কিছু কমিউনিটি পুলিশের তদারকি নজরে পড়েছে। এই ব্যবস্থা সারা বছর করা গেলে মানুষ আরও স্বাচ্ছন্দ্যে চলাচল করতে পারবে।

ঢাকা থেকে কুমিল্লা আসা অমিত মজুমদার বলেন, মাত্র ২ ঘণ্টায় ঢাকা থেকে আসলাম। পত্রিকার পাতা উল্টাতে উল্টাতে দেখি কুমিল্লা এসে গেছি। কোথাও যানজট নেই। পরিবার নিয়ে নির্ঝঞ্জাটভাবে আসতে পেরে ভালো লাগছে।

হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা রিজিয়নের পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রহমত উল্লাহ বলেন, গত ঈদে সামান্য জনবল সংকট থাকলেও এবার হাইওয়ে পুলিশের কোনো জনবল সংকট নেই। সড়কে চাঁদাবাজি রোধে মালিক-শ্রমিক নেতাদের সাথে কথা বলেছি। সেখানে আমাদের সদস্যরা জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেবো। ঈদযাত্রা স্বস্তির করতে হাইওয়ে পুলিশ বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সেগুলো হচ্ছে, যে কোনো অংশে দুর্ঘটনার খবর পেলে সর্বোচ্চ ১০ মিনিটের মধ্যে যেন ঘটনাস্থলে যেতে পারে তার জন্য গঠন করা হয়েছে ১৫টি কুইক রেসপন্স টিম। এই টিমে আছে ৫টি রেকার। মহাসড়কে পুলিশের দুটি অ্যাম্বুলেন্স ও বাড়তি আরও ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স রেখেছি। সার্বক্ষণিক দেখাশোনার জন্য ৩৪টি মোবাইল টিম মাঠে থাকবে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ কুমিল্লার নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা বলেন, হাইওয়ে পুলিশের সাথে আমাদের ৪০ জন সদস্য সার্বক্ষণিক থাকবে, মহাসড়কের কোনো অংশে যদি ক্ষতিগ্রস্তের খবর আসে যেন সাথে সাথে সংস্কার কাজ করে দেয়া যায়। ৭ জুলাই থেকে ১১ জুলাই পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টা এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। এবার যানজটের কোন সম্ভাবনা নেই।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে