বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ রেলওয়ে জাদুঘরের প্রদর্শনী শুরু

প্রকাশ : ০১ আগস্ট ২০২২, ১৯:৩১ | অনলাইন সংস্করণ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

সারা দেশে বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ রেলওয়ে জাদুঘরের প্রদর্শনী শুরু হয়েছে সোমবার। রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন  গোপালগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর দেশব্যাপী প্রদর্শনীর শুভ সূচনা করেন। পরে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

বাংলাদেশ রেলওয়ে একটি ব্রডগেজ ও একটি মিটারগেজ কোচ নিয়ে তৈরি করেছে ভ্রাম্যমাণ জাদুঘর। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন সংগ্রাম, স্বাধীনতা যুদ্ধ আর ইতিহাসের সমন্বয়ে এই ভ্রাম্যমাণ জাদুঘর তৈরি করা হয়েছে। এই জাদুঘর সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

অপরদিকে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বিকাল ৫টায় চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে বাংলাদেশ রেলওয়ের ভ্রাম্যমাণ বঙ্গবন্ধু জাদুঘর প্রদর্শনীর উদ্ধোধন করবেন।

‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর’ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা স্টেশনগুলোতে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত থাকবে এবং ওই অঞ্চলের মানুষের কাছে প্রদর্শন করা হবে। গোপালগঞ্জে এই জাদুঘরটি পাঁচ দিন অবস্থান করবে এবং সূর্যাস্তের আগ পর্যন্ত সবাই তা পরিদর্শন করতে পারবেন।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এরই মধ্যে ঢাকা থেকে জয়দেবপুর পর্যন্ত রেল জাদুঘরটি ট্রায়াল সম্পন্ন করা হয়েছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী, সোমবার থেকে মিটার গেজ শুরু হবে চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে। আর  ব্রডগেজ শুরু হবে গোপালগঞ্জ স্টেশন থেকে।

জানা গেছে, দুটি কোচের একটি থাকবে দেশের পূর্বাঞ্চলে অন্যটি থাকবে পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন রেল স্টেশনে। জাদুঘরটি কোন রেল স্টেশনে কত দিন থাকবে রবিবার (৩১ জুলাই) তার একটি শিডিউল প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

শিডিউলে দেখা যায়, রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে একটি জাদুঘর থাকবে ১ থেকে ৫ আগস্ট, ভাটিয়ারী স্টেশনে ৫ থেকে ৭ আগস্ট, সীতাকুণ্ড স্টেশনে ৭ থেকে ৯ আগস্ট, চিনকিআস্তানা স্টেশনে ৯ থেকে ১১ আগস্ট, ফেনী জংশনে  ১১ থেকে ১৫ আগস্ট, গুণবতী স্টেশনে  ১৪ থেকে ১৭ আগস্ট, নাঙ্গলকোর্ট স্টেশনে  ১৬ থেকে ১৯ আগস্ট, লাকসাম জংশনে  ১৮ থেকে ২৩ আগস্ট, চৌমুহনী স্টেশনে  ২৪ থেকে ২৫ আগস্ট, মাইজদী কোর্ট স্টেশনে  ২৬ থেকে ২৭ আগস্ট, নোয়াখালী স্টেশনে ২৮ থেকে ২৯ আগস্ট, চাঁদপুর স্টেশনে  ৩০ আগস্ট থেকে ১ সেপ্টেম্বর, কুমিল্লা স্টেশনে  ২ থেকে ৪ নভেম্বর, আখাউড়া স্টেশনে  ৫ থেকে ৮ নভেম্বর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশনে  ৯ থেকে ১০ নভেম্বর, ভৈরব স্টেশনে  ১১ থেকে ১২ নভেম্বর, নরসিংদী স্টেশনে  ১৩ থেকে ১৪ নভেম্বর, টঙ্গী জংশনে  ১৫ থেকে ১৬ নভেম্বর এবং ক্যান্টনমেন্ট স্টেশনে থাকবে ১৭ থেকে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত।

অপরদিকে আরেকটি কোচ পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের গোপালগঞ্জ স্টেশনে থাকবে ১ থেকে ৫ আগস্ট, কাশিয়ানী স্টেশনে ৬ থেকে ৭ আগস্ট, ভাটিয়াপাড়া ঘাট স্টেশনে  ৯ থেকে ১০ আগস্ট, মধুখালী জংশনে ১২ থেকে ১৩ আগস্ট, রাজবাড়ী স্টেশনে ১৫ থেকে ১৭ আগস্ট, ফরিদপুর স্টেশনে  ১৯ থেকে ২০ আগস্ট, পাংশা স্টেশনে ২২ থেকে ২৩ আগস্ট, কুমারখালি স্টেশনে ২৫ থেকে ২৬ আগস্ট, কালুখালী জংশনে ২৮ থেকে ২৯ আগস্ট, কুষ্টিয়া স্টেশনে ৩০ থেকে ৩১ আগস্ট, খুলনা স্টেশনে ২ থেকে ৭ নভেম্বর, দৌলতপুর স্টেশনে ৯ থেকে ১০ নভেম্বর, নোয়াপাড়া স্টেশনে ১২ থেকে ১৩ নভেম্বর, যশোর স্টেশনে ১৫ থেকে ১৮ নভেম্বর, বেনাপোল স্টেশনে  ২০ থেকে ২১ নভেম্বর, নাভারণ স্টেশনে ২২ থেকে ২৩ নভেম্বর, মোবারকগঞ্জ স্টেশনে ২৫ থেকে ২৬ নভেম্বর, দর্শনা স্টেশনে ২৮ থেকে ২৯ নভেম্বর এবং চুয়াডাঙ্গা স্টেশনে থাকবে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত।

বাংলাধেশ জার্নাল/আরকে