ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ আপডেট : ৬ মিনিট আগে

আমরা মানুষের জন্য কাজ করছি: আনোয়ার খান এমপি

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০২২, ১৬:৫৯  
আপডেট :
 ১০ আগস্ট ২০২২, ২০:৩৬

আমরা মানুষের জন্য কাজ করছি: আনোয়ার খান এমপি
ছবি: নিজস্ব
নিজস্ব প্রতিবেদক

লক্ষীপুর-১ (রামগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ও আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজের চেয়ারম্যান ড. আনোয়ার হোসেন খান এমপি বলেছেন, আমরা মেডিকেল কলেজ তৈরি করেছি। আনোয়ান খান মডার্ণ বিশ্ববিদ্যালয় ভালোভাবে চলছে। এমনকি নার্সিং কলেজও সুন্দরভাবে পরিচালনা করা হচ্ছে। সর্বোপরি আমরা মানুষের জন্য কাজ করছি। আমরা চাই সমাজের সব মানুষ যেনো ভালো থাকে।

বুধবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে অবস্থিত আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

ড. আনোয়ার হোসেন খান বলেন, আমি কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করতে চাই অগণিত মানুষ যারা আমাদের কাছে ভর্তির জন্য এসেছেন। কিন্তু আমরা সবার মন রক্ষা করতে পারিনি। ৮০ হাজার বাচ্চার মধ্যে মাত্র ১৩৭ জনকে ভর্তি করতে পেরেছি। এর মধ্যে ৬৫ জনই বিদেশি শিক্ষার্থী। অসংখ্য মানুষ ভর্তি হতে চেয়েছে। তাদের সিট দিতে পারিনি। এ জন্য ওই সকল অভিভাবক ও শিক্ষার্থীর প্রতি শ্রদ্ধা জানাই।

তিনি বলেন, এই মেডিকেল কলেজকে বিশ্বমানের মেডিকেল কলেজ হিসেবে গড়ে চলেছেন ১৫৬ জন শিক্ষক। আমি বিশ্বাস করি আজ যারা মেডিকেলে পড়তে এসেছেন একদিন তারা এই জাতি, দেশ ও বিশ্ববাসীকে গর্বিত করবেন।

করোনার কারণে তিন বছর পর এমন একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে পারায় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

ড. আনোয়ার হোসেন খান আরও বলেন, আজকের দিনটি আমাদের আনন্দের দিন। ফুলের মতো বাচ্চা যেসব অভিভাবক আমাদেরকে দিয়েছেন আমরা তাদেরকে বরণ করে নিয়েছি। আমরা আমাদের মতো করে চিকিৎসক হিসেবে তৈরি করে আপনাদের হাতে তুলে দেবো। এ সময় তিনি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের প্রতি দিক নির্দেশনা প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে মেডিকেলে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের শপথবাক্য পাঠ করান প্রিন্সিপাল অধ্যাপক এখলাসুর রহমান। এরপর সিনিয়র ব্যাচের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে ১৪তম ব্যাচের নতুন শিক্ষার্থীদেরকে বরণ করা হয়। এ সময় অভিভাবকদেরকে নিয়মিত শিক্ষকদের সঙ্গে সন্তানের প্রগ্রেস সম্পর্কে যোগাযোগ করার আহ্বান জানানো হয়। পরে মঞ্চে বক্তব্য রাখেন মেডিকেল কলেজে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

এ সময় একজন অভিভাবক বলেন, মাতৃত্ব অর্জনের পর থেকেই আমি স্বপ্ন দেখতাম আমার কন্যা সাদা এপ্রোন পরে মানবতার সেবায় কাজ করবে। আজ সাদা এপ্রোন পরে কন্যার মানবতার পথে যাত্রা শুরু হলো। এজন্য আনোয়ার খান মেডিকেল কলেজকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল অধ্যাপক এখলাসুর রহমান নতুন মেডিকেল শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমরা যারা এখানে সুযোগ পেয়েছো, তারা একদিন বড় ডাক্তার হবে। আমাদের যে কারিকুলাম তা বিশ্বমানের। ফলে তোমরা অনেক ভালো ডাক্তার হবে। যে প্রতিদিন ক্লাসে আসবে সেই পাস করবে। ফলে সফলতার জন্য তিনি শিক্ষার্থীদের রেগুলার ক্লাস করার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল অধ্যাপক হাবিবুজ্জামান চৌধুরী বলেন, আনোয়ার মডার্ণ মেডিকেল কলেজ থেকে ৫ হাজারের বেশি চিকিৎসক এমবিবিএস পাস করেছেন। এখান থেকেই অনেক চিকিৎসক এই হাসপাতালের ফ্যাকাল্টি হিসেবে কাজ করছেন। ঢাকা শহরের প্রাণকেন্দ্রে আমাদেরও ৭৫০ শয্যার হাসপাতাল, হেলথ কেয়ার, হোস্টেল, জিমনেশিয়াম রয়েছে। এখান থেকে শিক্ষার্থীরা এমবিএস পাস করে বিদেশেও পড়তে যাচ্ছে।

আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজের নির্বাহী উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) অধ্যাপক আশরাফ আব্দুল্লাহ ইউসুফ বলেন, কোয়ালিটি মেডিকেল কলেজ হিসেবে আনোয়ার খান একটি উজ্জ্বল নাম। আধুনিক সরঞ্জাম, সুযোগ-সুবিধা ও বিদেশি শিক্ষার্থী ও দেশ সেরা ফ্যাকাল্টি মেম্বার এই কলেজকে দেশসেরা করে চলেছে। শুধু মেডিকেল কলেজ নয়, আনোয়ার খান মডার্ণ ইউনিভার্সিটি ও নার্সিং কলেজ রয়েছে।

প্রফেরস ড. গুলনেওয়াজ বেগম (হেড অব এনাটমি) বলেন, আজ আমি সত্যিই আনন্দিত আপনাদের সবাইকে আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সশরীরে দেখে। দেশি-বিদেশি শিক্ষার্থীর এই মিলনমেলা এই মেডিকেল কলেজকে দেশসেরা করেছে। এ সময় নতুন মেডিকেল পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের নানা ধরণের দিকনির্দেশনা দেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ড. সুলতানা রোকেয়া মান্নান, প্রফেসর ড. মৌসুমী সেন, প্রফেসর ড. আতিকুর রহমান, প্রফেসর ড. মোস্তফা কামাল, প্রফেসর ড. এ.কে. এম আমিনুল হক, প্রফেসর ডাঃ মো. আজিজুল কাহহার, প্রফেসর ড. রাকিবুল আলম, প্রফেসর ড. আবদুস সালাম, প্রফেসর ড. মাহফুজুর রহমান, প্রফেসর ড. আলমগীর কবির, প্রফেসর ড. জাকিয়া শরীফ প্রমুখ।

বাংলাদেশ জার্নাল/একে/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত