ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ আপডেট : ১ মিনিট আগে

ট্রেন-বাস সংঘর্ষ: ২১ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর একজনের মৃত্যু

  শ্রীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ : ১৫ আগস্ট ২০২২, ১০:৪৮

ট্রেন-বাস সংঘর্ষ: ২১ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর একজনের মৃত্যু
ফাইল ছবি।
শ্রীপুর প্রতিনিধি

ঢাকা-ময়মনসিংহ রেল পথের গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার বরমী ইউনিয়নের মাইজপাড়া গ্রামে ময়মনসিংহগামী মোহুয়া ট্রেনের সাথে পোশাক শ্রমিকবাহী বাসের সংঘর্ষে আহত আরমানের (১৯) মৃত্যু হয়েছে।

তার মৃত্যুতে এ দুর্ঘটনায় ৫ জনের মৃত্যু হলো। রোববার (১৪ আগষ্ট) বিকেলে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২১ দিন পর তার মৃত্যু হয়। নিহতের বড় ভাই মাসুদ মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত আরমান গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার বরমী ইউনিয়নের বড়নল গ্রামের সবুজ মিয়ার ছেলে। সে পাশের তেলিহাটি ইউনিয়নের টেপিরবাড়ি গ্রামের জামান ফ্যাশন কারখানায় অপারেটর পদে চাকরি করত। প্রায় ২ মাস ধরে চাকরি করছিলেন।

নিহতের বড় ভাই মাসুদ জানান, দুর্ঘটনার পর থেকেই আরমানকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। দুর্ঘটনায় আরমানের মাথায় আঘাত লেগেছিল। প্রচুর অর্থ খরচ করতে হয়েছে চিকিৎসা করতে গিয়ে। মাথায় বড় ধরনের অস্ত্রপাচার করা হয়েছে। তাৎক্ষণিক বরাদ্দের ১০ হাজার টাকাও তারা পাননি। তবে এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ নেই তাদের। আত্মীয়স্বজনের কাছ থেকে ধার-দেনা করে চিকিৎসা করতে হয়েছে।

শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তরিকুল ইসলাম জানান, উপজেলার মাইজপাড়া এলাকায় ট্রেন-বাসের দুর্ঘটনায় আরমান নামে এক শ্রমিকের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। আমরা তার পরিবারের কাছে দাফন কাফনের জন্য ২০ হাজার টাকা হস্তান্তর করবো।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ জুলাই (রোববার) সকাল সাড়ে ৭টায় ঢাকা-ময়মনসিংহ রেল পথের গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার বরমী ইউনিয়নের মাইজপাড়া গ্রামে চলন্ত ট্রেনের সাথে পোশাক শ্রমিকবাহী বাসের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে প্রিয়া নামে এক নারী শ্রমিক এবং হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও ৩ জন নিহত হয়।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওএফ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত