ঢাকা, শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ২৪ মিনিট আগে
শিরোনাম

এমপি নদভী ও তার স্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা

  চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

প্রকাশ : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:৩৯  
আপডেট :
 ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:০২

এমপি নদভী ও তার স্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা
সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী। ফাইল ফটো
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া-লোহাগাড়া আসনের সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী ও তার স্ত্রী রিজিয়া রেজা চৌধুরীকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কটূক্তি করার অভিযোগে ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক জহিরুল কবিরের আদালতে প্রফেসর ড. রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীর পক্ষে মামলা করেন মিজানুর রহমান নামে এক যুবক। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেন।

মামলার আসামিরা হলেন, শোয়াইন বিন হাবিব, শরিফ আহমেদ, ইউসুফ বিন হোসাইন খান, এএসএম এহসানুল হক, ইউসুফ আহমেদ, কবির আহমদ, ইকবাল হাফিজ, সাইফুল ইসলাম ও মাহমুদ মিনহাজ।

মামলার বাদী মিজানুর রহমান বলেন, ‘প্রফেসর ড. আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী একজন সংসদ সদস্য, শিক্ষাবিদ ও ইসলামিক স্কলার হিসেবে সুপরিচিত। রিজিয়া রেজা চৌধুরীও একজন শিক্ষানুরাগী। তিনি আইআইইউসি’র বোর্ড অব ট্রাস্টের সদস্য এবং বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য। তাদের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত এই ৯ ব্যক্তি ফেসবুকে অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ বিভিন্ন পোস্ট দিয়ে আসছে, যা ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন অনুযায়ী অপরাধ। তাই তাদের বিষয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সম্প্রতি আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের পঞ্চম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়৷ এই অনুষ্ঠানে শিক্ষা উপমন্ত্রী, মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সভানেত্রীসহ রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে প্রতিষ্ঠিত অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। এই অনুষ্ঠানের বিভিন্ন ছবি ফেসবুকের বিভিন্ন পেইজে শেয়ার হয়। এসব পেইজে আইআইইউসির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নয় এমন বহিরাগতরাই সাংসদ নদভী, রিজিয়া রেজা চৌধুরী ও আইআইইউসি নিয়ে কুরুচিপূর্ণ পোস্ট ও কমেন্ট করে।’

বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘আসামিরা প্রতিনিয়ত এমপি নদভী সাহেব ও রিজিয়া রেজা চৌধুরীর বিরুদ্ধে ফেসবুকে ব্যক্তিগতভাবে চরিত্রহননমূলক কুরুচিপূর্ণ পোস্ট দিচ্ছে। যা ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন ২০১৮ এর ২৪, ২৫ ও ২৯ ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।’

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত