ঢাকা, শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ১৩ মিনিট আগে
শিরোনাম

মহাসড়কের পাশে অবৈধ পার্কিং

পুলিশের সঙ্গে পরিবহন শ্রমিকদের সংঘর্ষ: দুই ঘণ্টা অবরুদ্ধ মহাসড়ক, ভাঙচুর

  গাজীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ : ০১ অক্টোবর ২০২২, ২০:৫৪  
আপডেট :
 ০১ অক্টোবর ২০২২, ২১:১৬

পুলিশের সঙ্গে পরিবহন শ্রমিকদের সংঘর্ষ: দুই ঘণ্টা অবরুদ্ধ মহাসড়ক
শ্রমিকরা প্রায় দুই ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক। ছবি: প্রতিনিধি
গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুরের টঙ্গীতে সড়কের অবৈধ পার্কিং উচ্ছেদের জেরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে ট্রাক-কাভার্ডভ্যান শ্রমিকরা। অবৈধ পার্কিং করে রাখা বেশ কয়েকটি গাড়ির গ্লাস ও হেডলাইট ভাঙচুরের অভিযোগে শ্রমিকরা পুলিশের একটি টহলগাড়ি ভাঙচুর করে। এ সময় পুলিশের এক এসআই ও দুই কনস্টেবল আহত হয়েছেন।

শ্রমিকদের প্রায় দুই ঘণ্টার অবরোধে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান, টঙ্গীর মেঘনা রোডে অবৈধভাবে ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পার্কিং করে রাখায় যানজটের সৃষ্টি হয়। শনিবার দুপুরে জিএমপির টঙ্গী জোনের এক পুলিশ কর্মকর্তা ওই সড়কে যানজট দেখে অবৈধভাবে পার্কিং করে রাখা গাড়িগুলো সরিয়ে নেয়ার জন্য নির্দেশ দেন। কিন্তু শ্রমিকরা সময়ক্ষেপণ করায় ওই পুলিশ কর্মকর্তা লাঠি দিয়ে কয়েকটি গাড়ির গ্লাস ও হেডলাইট ভাঙচুর করে।

ওই পুলিশ কর্মকর্তা জানান, এ খবর ট্রাক স্ট্যান্ডের শ্রমিকদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত শ্রমিকরা বেলা আড়াইটা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত দুই ঘণ্টা মহাসড়কের দুই পাশ অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। পরে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে শ্রমিকদের বুঝিয়ে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দিতে গেলে উত্তেজিত শ্রমিকদের ছোড়া ইটের আঘাতে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশের এসআই কায়সার হাসান ফারুক (৩২), কনস্টেবল মাসুদ রানা (৩৫) ও ড্রাইভার আমিনুল ইসলাম (৩৩) আহত হন। পরে তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

বেলা আড়াইটা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত মহাসড়কের দুই পাশ অবরোধ করে বিক্ষোভ করে শ্রমিকরা

পুলিশের উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) আলমগীর হোসেন বলেন, সড়কের ওপর গাড়ি পার্কিং নিয়ে ভুল বুঝাবুঝি থেকে অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। এ ঘটনার জন্য যারা দায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পাশাপাশি পুলিশের গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গজীপুর জেলা ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ বলেন, পুলিশের টঙ্গী জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মেহেদি হাসান দিপু নিজে দাঁড়িয়ে থেকে মেঘনা সড়কে পার্কিং করা প্রায় ৩০ থেকে ৪০টি ট্রাকের গ্লাস, হেডলাইটসহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি ভাঙচুর করে। এতে শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত