ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ১৬ মিনিট আগে
শিরোনাম

গাজীপুরে যুবক খুন: খণ্ডিত দেহের মধ্যাংশ উদ্ধার, বন্ধু গ্রেপ্তার

  গাজীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ : ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০২:৫০  
আপডেট :
 ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০২:৫৭

গাজীপুরে যুবক খুন: খণ্ডিত দেহের মধ্যাংশ উদ্ধার, বন্ধু গ্রেপ্তার
গাজীপুর। ফাইল ফটো
গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায় শনিবার এক পোশাক কর্মীর লাশের ৭টি টুকরা বিভিন্ন স্থান থেকে উদ্ধারের পর রোববার সন্ধ্যায় রান্না ঘর থেকে তার দেহের মধ্যাংশ উদ্ধার করেছে পিবিআই সদস্যরা।

রোববার বিকেলে মানিকগঞ্জ থেকে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মো.শাহিনুর (৩২) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে গাজীপুরের পিবিআই। শাহিনুর সাতক্ষীরার তালা থানার বালিয়া এলাকার মোসলেম উদ্দিনের ছেলে।

নিহত পোশাক কর্মী সবুজ বার্নাড ঘোষাল স্থানীয় পানজোড়া এলাকার অমূল্য বার্নাড ঘোষালের ছেলে এবং পানজোড়া এলাকার পূর্বাচল অ্যাপারেলস নামের পোশাক কারখানার কোয়ালিটি চেকার (কিউসি) ছিলেন।

গাজীপুর পিবিআই’র পরিদর্শক মো. হাফিজুর রহমান, শাহিনুর কালীগঞ্জের দক্ষিণ পাঞ্জোড়া এলাকায় পূর্বাচল অ্যাপারেলসের কাছে মানিক মেম্বারের বাড়ি ভাড়া থাকেন। কিন্তু ঘটনার পর শাহিনুর গ্রামের বাড়ি পালিয়ে যায়। পরে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রোববার দুপুরে মানিকগঞ্জ শহর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ সময় তার হেফাজত থেকে ভিক্টিমের মোবাইল সেট এবং তার দেয়া তথ্যমতে কালীগঞ্জের দক্ষিণ পানজোড়ার এলাকার ভাড়া বাসার রান্না ঘর থেকে ভিক্টিমের দেহের মধ্যাংশ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া সেখান থেকে খুনে ব্যবহৃত একটি বটি ও বটি ধার দেয়ার রেত উদ্ধার করেছে পিবিআই সদস্যরা।

ভিক্টিম ও শাহিনুর এলাকার দুই ভিন্ন পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। তারা পূর্বপরিচিত এবং তাদের মধ্যে বন্ধুত্বও ছিল বলে জানিয়েছে পিবিআই।

এ ব্যাপারে শাহিনুরকে জিজ্ঞাসাবাদের পর বিস্তারিত জেনে প্রেস ব্রিফিং করে সাংবাদিকদের জানানো হবে বলেন পিবিআই কর্মকর্তা হাফিজ।

নিহতের মামা শ্যামল ঘোষাল জানান, সবুজ গত ২৮ সেপ্টেম্বর (বুধবার) সকালে কারখানায় যায় এবং বিকেল ৪টা ৬ মিনিটে পোশাক কারখানা থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। কোথায় তার সন্ধান না পেয়ে বৃহস্পতিবার এ ব্যাপারে পরিবারের পক্ষ থেকে কালীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। পরে শনিবার সকালে পূর্বাচল অ্যাপারেল লিমিটেড-এর দক্ষিণ পাশে একটি ডোবায় এক যুবকের লাশের কোমরের নিচের অংশ এবং এর অদূরে উত্তর দিকের একটি জঙ্গলে দুই হাত পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসি থানায় খবর দেয়। তখন মাথা বিহীন ও লাশ সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। তবে পবিারের লোকজনের ধারণা ছিল এটা সবুজের লাশ। সন্তান সম্ভবা সবুজের স্ত্রীর প্রথম সন্তান আগামী মাসে ডেলিভারির তারিখ রয়েছে।

গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ছানোয়ার হোসেন জানান, গত শনিবার সকাল ১১টার দিকে "পূর্বাচল অ্যাপারেল লিমিটেড" এর দক্ষিণ দিকে একটি ডোবার কিনারায় অজ্ঞাত ওই যুবকের দেহের কোমরের নিচের অংশ এবং এর কিছু দূরে উত্তর দিকে একটি জঙ্গলে খণ্ডিত দুই হাত পড়ে থাকার খবর পায় পুলিশ। পুলিশ প্রথমে ডোবা থেকে কোমড় থেকে দুই পায়ের হাঁটু পর্যন্ত অংশ, পাশের জঙ্গল থেকে অঙ্গুলবিহীন খণ্ডিত দুই হাত, জিন্সের প্যান্ট উদ্ধার করে। পরে বিকেলে দেহের অবশিষ্টাংশ উদ্ধার তল্লাশি চালিয়ে ডোবার পানির নিচ থেকে বস্তায় ভরা দেহ থেকে খণ্ডিত মাথা এবং কোমড় থেকে গলা পর্যন্ত অংশ ছাড়াও এক পায়ের দুইটি খণ্ড উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে দেহের আরো খণ্ডিত অংশ উদ্ধারে অভিযান চালানো হচ্ছে। পুলিশ মাথাসহ লাশের সাতটি খণ্ড উদ্ধার করার পর স্বজনরা সবুজের লাশটি সনাক্ত করতে সমর্থ হয়।

রোববার এ ঘটনায় নিহতের বাবা কালীগঞ্জ থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে মামলা করেছেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/জিকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত