ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : ২ মিনিট আগে
শিরোনাম

সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের প্রতিরোধে একমত বিজিবি ও বিজিপি

  নিজস্ব প্রতি‌বেদক

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৬:০১  
আপডেট :
 ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৬:০৪

সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের প্রতিরোধে একমত বিজিবি ও বিজিপি
বিজিবির প্রেসব্রিফিং। সংগৃহীত ছবি
নিজস্ব প্রতি‌বেদক

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের অপতৎপরতা মেনে নেবে না বিজিবি ও বিজিপি। এজন্য যৌথ টহল শুরুর ব্যাপারে একমত হয়েছে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী। এ কথা জা‌নি‌য়ে‌ছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে আশাবাদ ব্যক্ত করা হলেও সুনির্দিষ্ট দিনক্ষণ মেলেনি। তবে মাদক চোরাচালান বন্ধ, অবৈধ অনুপ্রবেশ ঠেকাতে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষার কথা হয়েছে সদ্য শেষ হওয়া সীমান্ত সম্মেলনে।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এবং মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) মধ্যে মিয়ানমারের রাজধানী নেপিদোতে গত ২৪ থেকে ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত ৮ম সীমান্ত সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সেই সীমান্ত সম্মেলনের বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে মঙ্গলবার দুপু‌রে বিজিবি সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

এ সময় বিজিবি মহাপরিচালক ব‌লেন, বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের অপতৎপরতা লক্ষ্য করা গেছে। মিয়ানমারে অভ্যন্তরীণ বিচ্ছিন্নতাবাদী তৎপরতার কারণে বিশৃঙ্খলা দেখা দিচ্ছে। আমরা সীমান্ত সম্মলনে বিষয়টি নজরে এনেছি। সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের অপতৎপরতা রোধে যৌথভাবে সীমান্তবর্তী স্থলপথ পর্যবেক্ষণ করবে বিজিবি-বিজিপি।

তি‌নি ব‌লেন, সীমান্তের স্থলপথে যৌথ ও সমন্বিত টহলের বিষয়ে একমত হয়েছি আমরা। নৌ-পথে টহল অব্যাহত আছে। সীমান্তে যেসব অপরাধ আছে সেসব নিয়ন্ত্রণে ইতিবাচক মনোভাব ব্যক্ত করেছে বিজিপি।

আরো পড়ুন: বিজিবি-বিজিপি ৮ম সীমান্ত সম্মেলন সমাপ্ত

বাংলাদেশ জার্নাল/সুজন/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত