ঢাকা, বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : ১ মিনিট আগে
শিরোনাম

মিটফোর্ড হাসপাতালে প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকার হিসাবে গরমিল

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮:২১

মিটফোর্ড হাসপাতালে প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকার হিসাবে গরমিল
ফাইল ছবি
নিজস্ব প্রতিবেদক

পুরান ঢাকা স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতালের ইউজার ফ্রির প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকার হিসাব দিতে পারছেন না ক্যাশিয়ার আব্দুছ সাত্তার।

শনিবার বিকেলে মিটফোর্ড হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী মো. রশীদ-উন-নবী এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, হাসপাতালের ক্যাশিয়ার আব্দুছ সাত্তারের হিসাব অনুযায়ী ইউজার ফ্রির পৌনে দুই কোটি টাকার গরমিল আছে। জিডি অফিসের সঙ্গে কথা বলে একটি তদন্ত কমিটি গঠন প্রক্রিয়াধীন আছে। তদন্ত কমিটির কাজ শেষে বলা যাবে আসলে টাকার পরিমাণ কত।

তিনি বলেন, গত মঙ্গলবার থেকে আব্দুছ ছাত্তারকে এই গরমিলের হিসাব মেলাতে দেয়া হয়। কিন্তু তিনি অফিসে দিনরাত অবস্থান করেও হিসাব দিতে পারছেন না। আর সময় কত দিব? এখন তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।

প্রশাসনিক ও আইনগত ব্যবস্থা দুটোই নেয়া হবে জানিয়ে তিনি বলেন, এই কাজে আর কেউ জড়িত থাকলে তাদেরও শাস্তির আওতায় আনা হবে।

এদিকে হাসপাতালটির একটি সূত্র জানিয়েছে, প্রতিদিন কত টাকা ‘ইউজার ফি’ আদায় হলো আর কত টাকা জমা হলো তা মনিটরিং করেন হাসপাতাল উপপরিচালক মোহাম্মদ আলী হাবিব। এখানে উপপরিচালকের মনিটরিং- এর ঘাটতি রয়েছে।

এ অভিযোগের বিষয়ে মোহাম্মদ আলী হাবিব বলেন, একমাস নয়। মিটফোর্ড হাসপাতালের ইউজার ফি ১০ ও ১৫ দিন পর পর সরকারি কোষাগারে জমা দেয়া হয়। আর এখানে মনিটরিংয়ের কোনো ঘাটতি নেই। যে গরমিল হয়েছে, তার হিসেব তাকে (ছাত্তার) দিতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত