ঢাকা, সোমবার, ২৭ মার্চ ২০২৩, ১৩ চৈত্র ১৪২৯ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
শিরোনাম

হিলি সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দেয়া নিয়ে বিজিবি-বিএসএফ উত্তেজনা

  দিনাজপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ : ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৩:০৪  
আপডেট :
 ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৩:০৯

হিলি সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দেয়া নিয়ে বিজিবি-বিএসএফ উত্তেজনা
ছবি: প্রতিনিধি
দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুরের হিলি সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দেয়ার চেষ্টাকে কেন্দ্র করে ফের বিজিবি ও বিএসএফ’র মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। একপর্যায়ে বিজিবির হস্তক্ষেপে বেড়া দেয়া বন্ধ করে দেয় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আন্তর্জাতিক সীমানা আইন লঙ্ঘন করে দিনাজপুরের হিলি সীমান্তের হিন্দু মিশন এলাকায় আবারও কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের চেষ্টা চালায় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। তবে বিজিবির হস্তক্ষেপে কাজটি বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয় তারা।

এলাকাবাসী জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে হিলি সীমান্তে হিন্দু মিশন এলাকায় সীমানা ঘেঁষে ২৮৫ নম্বর মেইন পিলারের ৩২ এস পিলারের কাছে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের কাজ শুরু করে বিএসএফ। বিজিবি ২০ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা এতে বাধা দেন। এ সময় তাদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এর পরিপ্রেক্ষিতে দুই বাহিনীই তাদের অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন করে। পরে উভয় পক্ষের আলোচনার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

এর আগে মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে হিলি সীমান্তের ২৮৫/১১ নম্বর সাব সীমানা পিলার থেকে উত্তরে ২২ নম্বর সাব সীমানা পিলার পর্যন্ত ১০-১২ গজ ভেতরে কাঁটাতারের বেড়া দেয়ার জন্য খুঁটি স্থাপন করতে থাকে বিএসএফ। বিষয়টি বিজিবির নজরে এলে তারা খুঁটি স্থাপন কাজে বাধা দেয়। কিন্তু বিএসএফ সদস্যরা খুঁটি স্থাপন অব্যাহত রাখলে আবারও বাধা দেয় বিজিবি।

এ সময় বিএসএফ সদস্যরা অস্ত্র নিয়ে মারমুখী অবস্থান নিলে বিজিবি সদস্যরাও পাল্টা অবস্থান নেন। এ নিয়ে বিজিবি ও বিএসএফের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মধ্যে ফোনালাপ হয়। পরে তাদের নির্দেশে বিকেল ৩টায় হিলি সিপি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার সাইদুল ইসলাম এবং ভারতের হিলি বিএসএফ ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার বিসি জোসির মধ্যে সংক্ষিপ্ত বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে জানানো হয়, এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবে। সেসময় পর্যন্ত কোনো ধরনের স্থাপনা করা যাবে না।

বিজিবির একটি সূত্র জানায়, হিলি সীমান্তের কিছু অংশে কাঁটাতারের বেড়া দেয়া নেই। এ সুযোগ নিয়ে বিএসএফ সীমান্তের ১০-১২ গজের মধ্যে বেড়া দেয়ার জন্য খুঁটি স্থাপন করে, যা আন্তর্জাতিক সীমানা আইনের লঙ্ঘন। কারণ সীমান্তের নোম্যান্সল্যান্ডের ১৫০ গজের মধ্যে কোনো স্থাপনা করা যাবে না। কিন্তু বিএসএফ সেটি না মেনে সীমান্তের ১০-১২ গজের মধ্যে কাজ শুরু করলে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

বিজিবি হিলি সিপি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার সাইদুল ইসলাম জানান, আমাদের না জানিয়ে বিএসএফ সীমান্তের ১০-১২ গজের মধ্যে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের কাজ করছিল। আমরা তাতে বাধা দেই। এরপরেই বিএসএফ উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরির চেষ্টা করে। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে জয়পুরহাট বিজিবি অধিনায়ককে জানালে এ নিয়ে বিজিবির দিনাজপুর সেক্টর কমান্ডার এবং বিএসএফের রায়গঞ্জ সেক্টরের ডিআইজির মধ্যে ফোনালাপ হয়। পরে বিএসএফের ডিআইজির নির্দেশে বিএসএফ কাজ বন্ধ করে। এতে সীমান্ত পরিস্থিতি শান্ত হয়। তবে এখনও সেখানে থমথমে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/জিকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত